• ঢাকা
  • সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ০৩:৫০ অপরাহ্ন

গোপালগঞ্জে জমিজমা সংক্রান্ত মামলা


প্রকাশের সময় : এপ্রিল ২৫, ২০২৩, ৯:০৩ অপরাহ্ন / ৪৫
গোপালগঞ্জে জমিজমা সংক্রান্ত মামলা

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধিঃ গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলার কামারোল গ্রামে প্রতিপক্ষের জমি কিনতে রাজি হওয়ায় অপর পক্ষের খোকা মিয়া ওরফে মোজাফফর ওরফে মো. আবুল কাশেম (৫০) নামে এক ব্যক্তি নিজে বাদি হয়ে আদালতে ১০৭ ধারার মামলা দিয়ে সম্ভাব্য ক্রেতা শেখ হাজ্জাজ হোসেন (৩৩) নামে এক ব্যবসায়ীকে হয়রানির অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগী ও তার পরিবার।

এ সময় ভুক্তভোগী শেখ হাজ্জাজ হোসেন বলেন, আমার চাচা একজন শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন। আমাদেরকে হেয় করতে খোকা মিয়া ও তার লোকজন উঠে পড়ে লেগেছে। পরে এ সংক্রান্তে ভুক্তভোগী শেখ হাজ্জাজ হোসেন অভিযুক্ত একই গ্রামের মৃত উতারুদ্দিন মোল্যার ছেলে খোকা মিয়া ওরফে মোজাফফর ওরফে মো. আবুল কাশেম ও তার দুই সন্তানকে বিবাদী করে কাশিয়ানী থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, ভুক্তভোগী ঢাকায় ব্যবসায় নিয়োজিত থাকেন। মাঝেমধ্যে গ্রামের বাড়িতে বেড়াতে আসেন। আনুমানিক ২৫ দিন আগে ১ নং বিবাদীর চাচাতো ভাই সহিদুল আলম ওরফে সহিদুল মোল্যা (৫৩) সে তার জমি আমার নিকট বিক্রির প্রস্তাব দিলে আমি উক্ত জমি কিনতে রাজি হই। এ সংবাদে খোকা মিয়া ক্ষিপ্ত হয়ে আমাকেসহ তার প্রতিপক্ষের লোকজনের বিরুদ্ধে আদালতে ১০৭ ধারার মামলা করেন। পরে গত ২৩ এপ্রিল দুপুরে আমার নিজের বসত বাড়ির সামনে রাস্তায় কয়েকজন সাক্ষীর উপস্থিতিতে মামলার বিষয়ে বিবাদীগণের নিকট জানতে চাইলে বিবাদী গং আমার ওপর চড়াও হয়ে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে ও মিথ্যা মামলা দিয়ে আমাকে ফাঁসিয়েছে এবং আমার বাড়ি ঘরে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়ে চলে যায়।

এ বিষয়ে বিবাদী খোকা মিয়া ওরফে মোজাফফর ওরফে মো. আবুল কাশেমের ব্যবহৃত মুঠোফোনে একাধিকবার কল করেও তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

এ বিষয়ে কাশিয়ানী থানার এস. আই আশুতোষ কুমার জানান, অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।