• ঢাকা
  • শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ০৬:৩৬ অপরাহ্ন

গোপালগঞ্জে চাঞ্চল্যকর ক্ষমা বিশ্বাস হত্যা মামলায় একজনের মৃত্যুদন্ড


প্রকাশের সময় : জুলাই ১, ২০২২, ১:৫৩ পূর্বাহ্ন / ৩২২
গোপালগঞ্জে চাঞ্চল্যকর ক্ষমা বিশ্বাস হত্যা মামলায় একজনের মৃত্যুদন্ড

কে এম সাইফুর রহমান, গোপালগঞ্জঃ গোপালগঞ্জে চাঞ্চল্যকর ক্ষমা বিশ্বাস হত্যা মামলায় অজিত বাকচী নামের একজনকে মৃত্যুদন্ডের আদেশ দিয়েছেন বিচারিক আদালত। সেই সাথে তাকে এক লক্ষ টাকা জরিমানাও করা হয়েছে।

গোপালগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মো. আব্বাস উদ্দীন বৃহস্পতিবার (৩০ জুন) দুপুরে এই রায় দেন।

মৃত্যুদন্ড প্রাপ্ত ওই আসামী পলাতক রয়েছে। মামলার অপর আসামীকে খালাস দেওয়া হয়েছে।

মামলার বিবরণে জানা যায়, গোপালগঞ্জের মুকসুদপুর উপজেলার খোর্দ্দ দূর্বাশুর গ্রামের রমেশ বাকচীর ছেলে দন্ডপ্রাপ্ত আসামী অজিত বাকচী নিহত ক্ষমা বিশ্বাসের মেয়ে তপু বিশ্বাসকে বিয়ে করার জন্য ঘটনার এক বছর আগে প্রস্তাব দেয়। প্রস্তাব নাকচ হওয়ায় ওই পরিবারকে প্রতিনিয়ত হুমকি দিয়ে আসছিলো আসামীরা।

গত ২০১৩ সালের ১৩ অক্টোবর রাত আনুমানিক সাড়ে ১১টার দিকে পূজার অনুষ্ঠান দেখে বাড়ি ফিরছিলেন ক্ষমা বিশ্বাস, মেয়ে তপু বিশ্বাস, ছেলে অপু বিশ্বাস ও বোন স্বপ্না। পথিমধ্যে তপুকে জোর করে ছিনিয়ে নিতে গেলে মা ক্ষমা বিশ্বাস বাঁধা দিলে ধারালো ছুরি দিয়ে অজিত বাকচী তার বুকে আঘাত করলে ঘটনাস্থলেই সে মারা যান। এসময় ছেলে অপু বিশ্বাসকেও মারাত্মক ভাবে আহত করে হামলাকারীরা।

এ ঘটনায় পরের দিন নিহতের স্বামী অরবিন্দু বিশ্বাস ৬ জনকে আসামি করে মুকসুদপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরে পুলিশ তদন্ত শেষে দুইজনকে আসামী করে আদালতে চার্জশিট দাখিল করে। পরে দীর্ঘ শুনানী ও সাক্ষ্য প্রমাণ শেষে বিজ্ঞ বিচারক এ রায় ঘোষণা করেন।

সরকার পক্ষে এপিপি এ্যাডভোকেট শহিদুজ্জামান খান এবং আসামী পক্ষে এ্যাডভোকেট ফজলুল হক খান মামলাটি পরিচালনা করেন। গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন
অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বেঞ্চ সহকারী মো. মাহবুবুর রহমান।