• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৬:৪২ পূর্বাহ্ন

গোপালগঞ্জে গণমাধ্যমকর্মীদের সাথে চিকিৎসকদের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত


প্রকাশের সময় : এপ্রিল ২, ২০২৩, ৭:১৫ অপরাহ্ন / ৩৭
গোপালগঞ্জে গণমাধ্যমকর্মীদের সাথে চিকিৎসকদের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক, গোপালগঞ্জঃ সম্প্রতি গোপালগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে দায়িত্বরত চিকিৎসক-কর্মকর্তা—কর্মচারীর বিরুদ্ধে সার্টিফিকেট বাণিজ্য ও বিভিন্ন অনিয়ম তুলে ধরে মানববন্ধন করেন বিভিন্ন শ্রেণিপেশার সাধারণ মানুষ।

এর প্রতিবাদে রোববার সকালে গোপালগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের সম্মেলন কক্ষে গণমাধ্যমকর্মীদের সাথে মতবিনিময় করেছেন জেলায় বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে কর্মরত চিকিৎসকগণ ও সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। মতবিনিময় সভায় ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডা. অসিত কুমার মল্লিক জানান, জেনারেল হাসপাতাল থেকে প্রতিদিন শত শত রোগী সেবা নিয়ে সুস্থ্য হয়ে বাড়ি ফিরছেন। রোগীদের মাঝে সরকারিভাবে সরবরাহকৃত ওষুধ বিনামূল্যে প্রদান করা হচ্ছে। জখমী সার্টিফিকেট দেওয়ার ক্ষেত্রে ৩ সদস্য বিশিষ্ট বোর্ডের মাধ্যমে সার্টিফিকেট প্রদান করা হয়। আগে থেকেই এমআরআই ও ইকো মেশিন অকেজো রয়েছে। এছাড়া অন্যান্য মেশিন সচল আছে। হাসপাতালে ২য় ও ৪র্থ শ্রেণির ২৮৮ পদের মধ্যে ২৪১ জন আছে। বাকি ৪৭টি পদ শূন্য, চিকিৎসকদের ৬১টি পদের মধ্যে ২৮ জন আছে, বাকি ৩৩টি পদ শূন্য রয়েছে। পর্যাপ্ত চিকিৎসক ও কর্মচারী না থাকা সত্ত্বেও চিকিৎসকগণ প্রতি বিভাগে নিরলসভাবে সেবা প্রদান করে চলেছেন। সেই সাথে হাসপাতাল পরিষ্কার—পরিচ্ছন্ন রাখার চেষ্টাও করছি। তিনি আরও বলেন, হাসপাতালে দালাল মুক্ত করতে জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার ও ইউএনও এর নিকট মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করার জন্য ম্যাজিস্ট্রেট ও পুলিশের টিম চেয়েও কোন সহযোগিতা পাইনি। কিছু দালাল অধিক মুনাফার লোভে হাসপাতাল থেকে রোগী প্রাইভেট ক্লিনিকে নিয়ে যায়। ডায়াগনেস্টিক সেন্টার ও ক্লিনিকে এ ব্যাপারে প্রশাসনিক সহযোগিতা না পাওয়ায় পদক্ষেপ নিয়েও তা সফল হয়নি। সার্টিফিকেট প্রদানে কোন অনিয়ম বা সুনির্দিষ্ট কোনো অভিযোগ পেলে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এসময় অভিযুক্ত আর.এম.ও ডা. ফারুখ আহম্মেদকে হাসপাতাল থেকে দ্রুত প্রত্যাহারের দাবি জানান গণমাধ্যমকর্মীবৃন্দ।

মতবিনিময় সভায় গোপালগঞ্জ শেখ সায়েরা খাতুন মেডিকেল কলেজের পরিচালক ডা. মনোয়ার হোসেন, অধ্যক্ষ ডা. মো. জাকির হোসেন, সিভিল সার্জন ডা. নিয়াজ মোহাম্মদ, গোপালগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ও শেখ সায়েরা খাতুন মেডিকেল কলেজের প্রকল্প পরিচালক (অতিরিক্ত দায়িত্ব) ডা. অসিত কুমার মল্লিক, বিএমএ গোপালগঞ্জ জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ডা. হুমায়ুন কবির, হাসপাতালের আর.এম.ও ডা. ফারুখ আহম্মেদ সহ জেলায় বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ায় কর্মরত গণমাধ্যমকর্মীবৃন্ উপস্থিত ছিলেন।