• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৭:১৪ পূর্বাহ্ন

গোপালগঞ্জে খাদ্য গুদাম কর্মকর্তার যোগসাজসে অবৈধ চাউল হয়ে যায় বৈধ


প্রকাশের সময় : জানুয়ারী ২৩, ২০২৪, ১২:২০ পূর্বাহ্ন / ২২
গোপালগঞ্জে খাদ্য গুদাম কর্মকর্তার যোগসাজসে অবৈধ চাউল হয়ে যায় বৈধ

গোপালগঞ্জ থেকে শাবনুর খানমঃ গোপালগঞ্জ সদরের খাদ্য গুদাম কর্মকর্তার যোগ সাজসে এক রাতের ব্যবধানে অবৈধ কোয়ালিটি বিহীন চাউল হয়ে যায় বৈধ।

জানা গেছে, গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার প্রগতি অটো রাইস মিলের ১১ টন চাউল রবিবার সদর খাদ্য গুদাম গোডাউনে আসলে গোডাউন কর্মকর্তা প্রবীর কীর্তনীয়া চাউলের কোয়ালিটি না থাকায় মিল মালিক কে ১১ টন চাউল ফেরত পাঠায়। পরে এক রাতের ব্যবধানে একই চাউল কোয়ালিটি হয়ে যায় এবং আজ বেলা বারোটার দিকে গোপালগঞ্জ সদর খাদ্যে গুদামে নিয়ে নেয়।

এ বিষয়ে প্রগতী অটো রাইচ মিলের ১১ টন চাউল ভর্তি ট্রাক যার নং- ঢাকা মেট্রো -ট -২৪-৮১২৩: যার যার চালক লিয়ন সিকদার জানান, রবিবার সকালে আমি ট্রাকে করে ১১ টন চাউল গোপালগঞ্জ সদর খাদ্য গুদাম গোডাউনে নিয়ে আসি। পরে চাউলের কোয়ালিটি না থাকায় তা ফেরত দিয়ে দেয়। আমি ১১ টন চাউল নিয়ে আমাদের গোডাউনে চলে যাই। পরে রাতে গোপালগঞ্জ সদর খাদ্য গুদাম কর্মকর্তা প্রবীর কিতনিয়ার সঙ্গে কথা বলে মালিক কতৃপক্ষ। পরে সেই ১১ টন একই চাউল আজ সকালে খাদ্য গুদাম সরকারি গোডাউনে আনলে তা নিয়ে নেয় কর্তৃপক্ষ।

এ বিষয়ে গোপালগঞ্জ সদর খাদ্য গুদাম কর্মকর্তা
প্রবীর কীর্তনীয়া জানান, প্রগতি অটো রাইস মিলের ১১ টন চাউলের কোয়ালিটি ভালো না থাকায় ফেরত দেয়া হয়। এক রাতের ব্যবধানে কোয়ালিটি বিহীন চাউল কি ভাবে কোয়ালিটি হয়ে গেল প্রতিবেদকের এই প্রশ্নের কোন উত্তর দিতে পারেননি তিনি।