• ঢাকা
  • সোমবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ০৩:১৪ অপরাহ্ন

গোপালগঞ্জে কামাল হত্যা মামলায় ১জনকে মৃত্যুদণ্ড ও ২৩ জনকে খালাস প্রদান


প্রকাশের সময় : জুন ৪, ২০২২, ১০:৩৪ অপরাহ্ন / ৮৫
গোপালগঞ্জে কামাল হত্যা মামলায় ১জনকে মৃত্যুদণ্ড ও ২৩ জনকে খালাস প্রদান

কে এম সাইফুর রহমান, গোপালগঞ্জঃ গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলায় কামাল হোসেন নামের এক ব্যক্তিকে হত্যার দায়ে এক জনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত।বৃহস্পতিবার (২ জুন) দুপুরে গোপালগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মো. আব্বাস উদ্দিন এ রায় ঘোষণা করেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত পলাতক চান মিয়া কাশিয়ানী উপজেলার সাজাইল ইউনিয়নের তিতা গ্রামের বাসিন্দা। রায়ে মামলার ২৩ আসামিকে খালাস দেওয়া হয়েছে।

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণী সূত্রে জানা যায়, নিহত কামাল হোসেনের সঙ্গে চানমিয়ার পূর্ব বিরোধ ছিলো। ২০১৫ সালের ১৬ মে কামাল হোসেন কাশিয়ানী উপজেলার সাজাইল ইউনিয়নের তিতা গ্রামে একটি মিলাদ মাহফিল থেকে বাড়ি ফিরছিলেন। চান মিয়ার বাড়ির পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় চান মিয়া ও তাঁর সঙ্গে থাকা লোকজন কামালকে ঘিরে ফেলেন এবং এলোপাতাড়িভাবে মারতে থাকেন। একপর্যায়ে কামালের বুকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করা হয়। এতে সে ঘটনাস্থলে লুটিয়ে পড়েন। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে কাশিয়ানী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

হত্যাকাণ্ডের দুদিন পর ২০১৫ সালের ১৮ মে কামাল হোসেনের বাবা শাহাদাত ফকির বাদী হয়ে ২৮ জনকে আসামি করে কাশিয়ানী থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলায় কাশিয়ানী থানা পুলিশ আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করে। পরে আদালতে নারাজি দিলে আদালত পিবিআইকে তদন্তের নির্দেশ দেন। পিবিআই দীর্ঘ তদন্তের পর 24 জনকে আসামি করে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করেন। এরপর সব পক্ষের সাক্ষ্য যুক্তিতর্ক শেষে বৃহস্পতিবার এ রায় ঘোষণা করা হয়।

মামলায় রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী মো. শহীদুজ্জামান খান পিটু বলেন শুধু একজন আসামিকে ফাঁসির আদেশ দেওয়ায় তারা সন্তুষ্ট নন। হত্যাকাণ্ডের অন্য আসামিরা জড়িত ছিলেন। ন্যায় বিচার পেতে তাঁরা উচ্চ আদালতে আপিল করবেন বলে জানান। অপরদিকে,
আসামিপক্ষের আইনজীবী ছিলেন মো. শহীদুল ইসলাম।