• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ২৫ Jun ২০২৪, ০৩:৩১ অপরাহ্ন

গোপালগঞ্জের মুকসুদপুরে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে অস্থায়ী ঘর নির্মাণ করে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করলো প্রতিপক্ষরা


প্রকাশের সময় : মে ১২, ২০২২, ৯:৫১ অপরাহ্ন / ২৪৮
গোপালগঞ্জের মুকসুদপুরে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে অস্থায়ী ঘর নির্মাণ করে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করলো প্রতিপক্ষরা

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধিঃ জমি সংক্রান্তে বিরোধের জেরে চাঁদাবাজ ফেলু গংরা প্রতিপক্ষের বাড়িতে যাতায়াতের একমাত্র রাস্তায় অস্থায়ী ঘর নির্মাণ করে গৃহবন্দি করে রেখেছেন পরিবারটিকে।

মুকসুদপুর উপজেলার বাঁশবাড়িয়া ইউনিয়নের খাঞ্জাপুর গ্রামে জমি সংক্রান্তে বিরোধের জেরে ওই এলাকার দুধর্ষ চাঁদাবাজ ফেলু তালুকদার গংরা প্রতিপক্ষ মহিবুল্লাহ তালুকদার পরিবারের যাতায়াতের একমাত্র পথ বন্ধ করে দিয়েছে। এতে মহিবুল্লাহ তালুকদার প্রতিবাদ করলে তাকে ও তার মাকে গুরুতর আহত করে। পরে এ সংক্রান্তে মহিবুল্লার মা জাহেদা বেগম (৬৫) নিজে বাদী হয়ে মুকসুদপুর থানায় ফরিদ আহমেদ ফেলু তালুকদার (প্রধান আসামী), পলাশ, তুহিন, আলম, ওলি, সালমান ও সিহাব তালুকদার সহ ৭ জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা নং- ০৫, তারিখ ৩ মে ২০২২। পরে প্রধান আসামি ব্যতীত অন্য আসামীরা গত ৮ মে বিজ্ঞ আদালত থেকে জামিনে ছাড়া পেয়ে মামলার বাদী জাহেদা বেগম ও তার পরিবারের সদস্যদের জীবন নাশের হুমকি দিচ্ছে বলে ভুক্তভোগী পরিবারটি গণমাধ্যমকে জানান। বর্তমানে পরিবারটি চরম নিরাপত্তা হীনতায় ভুগছে বলে জানান। উল্লেখ্য, বাদী ও আসামিরা একই বংশের লোক। একে অপরের আত্মীয়-স্বজন।

ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্য মহিবুল্লাহ বলেন, আমার বড় ভাই সিঙ্গাপুর প্রবাসী, তার কষ্টার্জিত আয়- রোজগার দিয়ে আমাদের পরিবার জীবন যাপন করে। আমরা আমাদের ক্রয়কৃত এবং পৈত্রিক সূত্রেপ্রাপ্ত জায়গায় পাকা ভবন নির্মাণ করতে গেলে প্রতিপক্ষরা বিভিন্ন সময়ে বাঁধা দিয়ে আমাদের নিকট থেকে আনুমানিক ২ লক্ষ টাকা চাঁদা নিয়েছে। প্রতিপক্ষ প্রভাবশালী হওয়ায়, আমরা এলাকার নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গদেরকে জানিয়েও এর কোনো প্রতিকার পায়নি। আমাদের বৈধ জায়গায় প্রতিপক্ষের দ্বারা অবৈধভাবে নির্মাণ করা অস্থায়ী ঘর সরিয়ে আমাদের যাতায়াতের একমাত্র পথ উন্মুক্ত করে দিতে সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।