• ঢাকা
  • শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ০৫:১৪ অপরাহ্ন

গোপালগঞ্জের মুকসুদপুরে খাস জমি ও নদী দখল করে অবৈধভাবে শ্মশান নির্মাণের প্রতিবাদে গ্রামবাসীর মানববন্ধন


প্রকাশের সময় : মার্চ ৬, ২০২৪, ১০:৪১ অপরাহ্ন / ৫৭
গোপালগঞ্জের মুকসুদপুরে খাস জমি ও নদী দখল করে অবৈধভাবে শ্মশান নির্মাণের প্রতিবাদে গ্রামবাসীর মানববন্ধন

নিজস্ব প্রতিবেদক, গোপালগঞ্জঃ গোপালগঞ্জের মুকসুদপুর উপজেলার গোহালা ইউনিয়নের যাত্রাবাড়ী গ্রামে সরকারি খাস জমি ও কুমার নদী দখল করে অবৈধভাবে শ্মশান নির্মাণের প্রতিবাদে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে গ্রামবাসী। বুধবার বিকালে যাত্রাবাড়ী গ্রামের সর্বস্তরের জনসাধারণের আয়োজনে অনুষ্ঠিত উক্ত মানববন্ধন কর্মসূচিতে যোগ দেন গ্রামের সকল শ্রেণি-পেশার মানুষ।

মানববন্ধন কর্মসূচিতে সভাপতিত্ব করেন বিশিষ্ট সমাজ সেবক মোক্তার শেখ। যাত্রাবাড়ী গ্রামের হিরু মোল্লার সঞ্চালনায় ঘন্টাব্যাপী অনুষ্ঠিত মানববন্ধন কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন, ওবায়েদুল ইসলাম, বোরহান ফকির, যাত্রাবাড়ী মসজিদের ইমাম মোঃ হাদিছুর রহমান, সেকেন্দার শেখ, দেলোয়ার হোসেন, সাহিন মোল্যা, আনোয়ারা বেগম প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, মুসলিম অধ্যুষিত যাত্রাবাড়ী গ্রামের সরকারি খাস জমি ও কুমার নদী অবৈধভাবে দখল করে দীর্ঘদিন ধরে শ্মশান নির্মাণের পাঁয়তারা চালাচ্ছে একটি স্বার্থান্বেষী মহল। অত্র অঞ্চলে হিন্দু সম্প্রদায়ের কোন লোক এখানে বসবাস করে না। অথচ প্রশাসন ও গ্রামবাসীর নিষেধ উপেক্ষা করে শ্মশান নির্মাণের চেষ্টা চালাচ্ছে। এলাকাবাসীর নিষেধ সত্ত্বেও মাঝে মধ্যে দুই একটি লাশ এখানে পুড়িয়ে পরিবেশ ও কুমার নদীর পানি নষ্ট করে ফেলছে তারা। এই নদীর পানি দিয়েই আমরা গ্রামবাসীরা তাদের দৈনন্দিন কার্যক্রম পরিচালনা করি। তাছাড়া মানুষ পোড়ানোর তীব্র গন্ধে এলাকাবাসী অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে। অবৈধভাবে শ্মশান নির্মাণের অভিযোগে মুকসুদপুরের ইউএনও এস এম ইমাম রাজী টুলু গতকাল মঙ্গলবার (৫ মার্চ) দুপুরে অবৈধ এ স্থাপনা উচ্ছেদ করেন। মানববন্ধনে অংশ নেওয়া গ্রামবাসীরা মুসলিম অধ্যুষিত জনবসতিপূর্ণ উক্ত স্থানে শ্মশান নির্মাণ বন্ধের দাবিতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা,

গোপালগঞ্জ-১ আসনের বারবার নির্বাচিত সংসদ সদস্য, বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রী মুহাম্মদ ফারুক খানসহ সংশ্লিষ্ট সকল মহলের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।