• ঢাকা
  • শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ০২:১৬ অপরাহ্ন

গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষে গোপালগঞ্জে প্রস্তুতিমূলক সভা অনুষ্ঠিত


প্রকাশের সময় : মার্চ ১০, ২০২২, ১০:০০ অপরাহ্ন / ২২৩
গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষে গোপালগঞ্জে প্রস্তুতিমূলক সভা অনুষ্ঠিত

কে এম সাইফুর রহমান, গোপালগঞ্জঃ আগামী ১৭ মার্চ হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি, স্বাধীনতার মহান স্থপতি, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১০১তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস—২০২২ উদযাপন উপলক্ষে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় মহামান্য রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আগমন উপলক্ষে গোপালগঞ্জে প্রস্তুতিমূলক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার (১০ মার্চ) দুপুরে গোপালগঞ্জ জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষ “স্বচ্ছতা”য় এ প্রস্তুতিমূলক সভার আয়োজন করে জেলা প্রশাসন। গোপালগঞ্জ জেলা প্রশাসক ও বিজ্ঞ জেলা ম্যাজিস্ট্রেট শাহিদা সুলতানা’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত প্রস্তুতিমূলক সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিভাগীয় কমিশনার মো. খলিলুর রহমান।

মূলত ১৭ই মার্চ রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষে তাদের নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার ও গোটা সমাধি—সৌধ কমপ্লেক্স এলাকায় নিচ্ছিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা। সমাধিসৌধ কমপ্লেক্সের চারপাশে ও গুরুত্বপূর্ণ স্থানে সিসি ক্যামেরা স্থাপন, হেলিপ্যাডে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা, ফায়ার সার্ভিস, জরুরি অ্যাম্বুলেন্স ও হাসপাতালের কেবিন প্রস্তুত থাকবে। নিরাপদ পানি সরবরাহ ও বিদ্যুত সঞ্চালন ব্যবস্থা সচল রাখা সহ শহর পরিষ্কার—পরিচ্ছন্ন ও আলোকসজ্জায় সজ্জিত করতে দিকনির্দেশনা সহ সড়কের সৌন্দর্যবর্ধন ও নান্দনিক তোরণ নির্মাণের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

এছাড়া টুঙ্গিপাড়ায় ৫ দিনব্যাপী আবহমান গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী লোকসঙ্গীত ও হস্তশিল্পের মেলার আয়োজন থাকবে বলেও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। ভিভিআইপি ও ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের থাকা—খাওয়ার ব্যবস্থা করা সহ বিভিন্ন বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। উল্লেখ্য, টুঙ্গিপাড়ায় আগমনকারীদের প্রত্যেককেই কোভিড—১৯ শনাক্তকরণের পরীক্ষা এবং টিকা নেওয়ার সনদ পত্র থাকতে হবে।

এসময় প্রস্তুতিমূলক সভায় জেলা পুলিশ সুপার আয়েশা সিদ্দিকা বিপিএম, পিপিএম, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব আলী খান, সিনিয়র সহ—সভাপতি শেখ মোহাম্মদ রুহুল আমিন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. ইলিয়াছুর রহমান, মো. উসমান গনি, মোছাঃ নাজমুন নাহার, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. ইকবাল হোসেন, সিভিল সার্জন ডাঃ সুজাত আহমেদ, শেখ সায়েরা খাতুন মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ মো. জাকির হোসেন, গোপালগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের সহকারী পরিচালক অসিত কুমার মল্লিক, টুঙ্গিপাড়া পৌর মেয়র শেখ তোজাম্মেল হক টুটুল, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা একেএম হেদায়েতুল ইসলাম, গোপালগঞ্জ পৌরসভার প্যানেল মেয়র নাজমুল হাসান নাজিম, গণপূর্তের নির্বাহী প্রকৌশলী অমিত কুমার দেব, এলজিইডি’র নির্বাহী প্রকৌশলী মো. এহসানুল হক, সওজ’র নির্বাহী প্রকৌশলী মো. জাহিদ হোসেন, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী দীপক চন্দ্র তালুকদার, জেলা স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী কে, এম হাসানুজ্জামান, জেলা শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী প্রতিভা সরকার, জেলা পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. ফইজুর রহমান, ওজোপাডিকো’র ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মিজানুর রহমান, জেলা তথ্য কর্মকর্তা মুঈনুল ইসলাম, গোপালগঞ্জ প্রেসক্লাবের মহাসচিব সৈয়দ সিরাজুল ইসলাম, গোয়েন্দা সংস্থার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগন সহ বিভিন্ন দপ্তরের দপ্তর প্রধানগণ উপস্থিত ছিলেন।