• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২৫ Jul ২০২৪, ০৬:২৬ পূর্বাহ্ন

গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় পুকুরে বিষ দিয়ে মাছ নিধন : এ কেমন শত্রুতা!


প্রকাশের সময় : সেপ্টেম্বর ১৬, ২০২৩, ৫:০৯ অপরাহ্ন / ৮০
গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় পুকুরে বিষ দিয়ে মাছ নিধন : এ কেমন শত্রুতা!

এম ডি মাহাবুব, টুঙ্গিপাড়া, গোপালগঞ্জঃ গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া একটি মাছের ঘেরে বিষ প্রয়োগ করে ১০ লাখ টাকার মাছ মেরে ফেলেছে দুর্বৃত্তরা। শনিবার (১৬সেপ্টেম্বর) গভীর রাতে উপজেলার গোপালপুর ইউনিয়নের পাথর ঘাটা গ্রামে নওরোজ আলী খানের পুকুরে এ ঘটনা ঘটে। বিষ প্রয়োগের ফলে পুকুরের প্রায় ১০ লাখ টাকার মাছ মরে ভেসে উঠেছে।

পুকুরের মালিক নওরোজ আলী খান গণমাধ্যমকে বলেন, প্রায় ৪ একর জায়গার উপর পুকুর খনন করে আমি কয়েক বছর ধরে মাছ চাষ করছি। এবার পুকুরে রুই, কাতলা,জাপানি পুঁটিসহ দেশীয় বিভিন্ন জাতের মাছ চাষ করেছি। এতে আমার প্রায় ১০ লাখ টাকা খরচ হয়েছে। কিছু দিনের মধ্যেই মাছগুলো বাজারে বিক্রির উপযোগী হয়ে উঠতো।

শনিবার গভীর রাতে কয়েকজন লোক আমার পুকুরের আশপাশে ঘোরাঘুরি করেছে বলে জানান পুকুরের মালিক নওরোজ আলী খান। এর কিছুক্ষণ পরেই তিনি পুকুরের মাছ মরে ভেসে উঠতে দেখেন। প্রথমে আমরা গ্যাসের অভাবে মাছ মরে ভেসে উঠছে ভাবলেও সকালে পুকুরের পাড়ে তিনটি বিষের বোতল পড়ে থাকতে দেখি। পুকুরে বিষ প্রয়োগের কারণেই সব মাছ মরে ভেসে উঠেছে। এতে আমার প্রায় ১০ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, আমি একজন গরীব কৃষক, অনেক কষ্ট করে ব্যাংক থেকে ঋণ নিয়ে পুকুরে মাছের চাষ করি। তাই আমাকে আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করার জন্য পূর্ব শত্রুতার জেরে প্রতিপক্ষরা এ ঘটনা ঘটিয়ে থাকতে পারে। তিনি বলেন উক্ত ঘটনার বিষয়ে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান উপজেলা চেয়ারম্যান সহ গন্য মান্য ব্যক্তিদের অবহিত করা হইয়াছে।
এ ঘটনায় টুঙ্গিপাড়ায় থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

টুঙ্গিপাড়া থানার ডিউটি রত অফিসার এ এস আই মনির হোসেন বলেন অভিযোগ পেয়েছি। ঘটনা তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।