• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২৫ Jul ২০২৪, ০৭:৩৭ পূর্বাহ্ন

গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তার বিরুদ্ধে জ্ঞানের আলো পাঠাগারের সংবাদ সম্মেলন


প্রকাশের সময় : সেপ্টেম্বর ৪, ২০২৩, ১০:৫৬ পূর্বাহ্ন / ৪২
গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তার বিরুদ্ধে জ্ঞানের আলো পাঠাগারের সংবাদ সম্মেলন

নিজস্ব প্রতিবেদক, গোপালগঞ্জঃ গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ নন্দাসেন গুপ্তা এর নানা অনিয়ম ও অপকর্মের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন করেছে সামাজিক সংগঠন জ্ঞানের আলো পাঠাগার। শনিবার (০২ সেপ্টেম্বর) সকাল ১০টায় জ্ঞানের আলো পাঠাগারের তারাশি পাঠ কক্ষে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন সংগঠনটির স্বেচ্ছাসেবকবৃন্দ। উক্ত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন মানবিক এই সংগঠনটির সভাপতি সুশান্ত মন্ডল। তিনি এসময় বলেন- দরিদ্র জনসাধারণের জীবন মান উন্নয়ন সহ যে কোন দুর্যোগকালীন সময়ে সর্বাত্মক সহযোগিতা মূলক বিভিন্ন মানবিক কার্যক্রম পরিচালনা করে এ সংগঠনটি। কোটালীপাড়া হাসপাতালে কোন মাতৃদুগ্ধ কর্ণার না থাকায় দুগ্ধপোষ্য শিশুদের নিয়ে চিকিৎসা নিতে আসা মায়েরা ভোগান্তি ও অসস্তিকর পরিস্থিতিতে পড়তো বাচ্চাকে বুকের দুধ পান করানোর সময়, স্পর্শকাতর এ বিষয়টি গুরুত্বসহকারে বিবেচনা করে গত বছর জ্ঞানের আলো পাঠাগার হাসপাতালে একটি দৃষ্টি নন্দন মাতৃদুগ্ধ কর্ণার স্থাপন করে, এটি স্থাপনের পূর্বে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও হাসপাতালের তৎকালীন প্রশাসনিক প্রধান ডাঃ শাওন শিকদার টুটু এর সহিত কয়েক দফায় আলোচনা করে জ্ঞানের আলো পাঠাগার, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জ্ঞানের আলো পাঠাগারকে মাতৃদুগ্ধ কর্ণারটি স্থাপনের জন্য নিচ তলায় স্থান নির্ধারন করে দেয়, টিকা দানের পর শিশুরা কান্নাকাটি করে, এসময় মায়ের বুকের দুধ পান করানোর মাধ্যমে শিশুদের শান্ত করা হয়, এ ছাড়াও টিকেট কাউন্টারে সকলকে দীর্ঘ লাইনে দাড়িয়ে টিকেট কাটার সময় বাচ্চারা বিরক্ত করে, এ সময় মাতৃদুগ্ধ পানের মাধ্যমেই শিশুদের শান্ত করা হয়, সেই বিবেচনায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ কর্তৃক এই নির্ধারিত স্থানে মাতৃদুগ্ধ কর্ণারটি স্থাপন করে জ্ঞানের আলো পাঠাগার। তিনি আরো বলেন- গত বছরের ৮ মার্চ আন্তর্জাতিক নারী দিবসে জ্ঞানের আলো পাঠাগারের এ মাতৃদুগ্ধ কর্ণারটি উদ্বোধন করেন- উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফেরদৌস ওয়াহিদ। এসময় উপজেলা পরিষদ মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান লক্ষী সরকার, হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত প্রশাসনিক প্রধান ডাঃ শাওন শিকদার টুটু, মহিলা আওয়ামীলীগ সভানেত্রী রাফেজা বেগম, সাবেক ডেপুটি কমান্ডার আবুল কালাম দাড়িয়া, সংগঠনটির সভাপতি সুশান্ত মন্ডল সহ হাসপাতালের চিকিৎসক কর্মচারী উপস্থিত ছিলেন। এ ছাড়াও তিনি তার বক্তব্যে বলেন- হাসপাতালের বিভিন্ন অনিয়ম ও অব্যবস্থাপনা জ্ঞানের আলো পাঠাগারের স্বেচ্ছাসেবকদের নজরে এলে ডাঃ নন্দাসেন গুপ্তাকে বিষয়গুলো অবহিত করলে তিনি ক্ষিপ্ত হয়ে বলেন- হাসপাতালের অভ্যন্তরীন বিষয়ে আপনারা নাক গলান কেন? হাসপাতালের চিকিৎসকেরা ঠিকমত উপস্থিত না থাকা, রোগীদের ঔষধ বিতরণে অনিয়ম, ঠিকমত রোগীদের অপারেশন না করা সহ টয়লেট বাথরুম পরিস্কার রাখার বিষয়ে জ্ঞানের আলো পাঠাগারের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তুলে ধরে যথাযথ কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করা হয়। এতে ডাঃ নন্দাসেন গুপ্তা ক্ষিপ্ত হয়ে সবাইকে উসকেদেন জ্ঞানের আলো পাঠাগারের ফেইস বুকে হাসপাতালের পক্ষে কমেন্ট করার জন্য। তিনি তার অপকর্ম ও ব্যর্থতা ঢাকতে জ্ঞানের আলো পাঠাগার চাঁদা চাইতে এসেছিল, না দেওয়ায় হাসপাতালের বিরুদ্ধে ফেইস বুকে উল্টাপাল্টা পোষ্ট করে বলে অপপ্রচার করেন, বিষয়টি জ্ঞানের আলো পাঠাগারের নজরে এলে সংগঠনের পক্ষ থেকে এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানো হয়। এর পর ডাঃ নন্দাসেন গুপ্তা হিংসার বশবর্তী হয়ে জ্ঞানের আলো পাঠাগারের প্রতি প্রতিশোধ পরায়ন হয়ে কোন প্রকার নোটিশ ছাড়া গত ৩ আগষ্ট বৃহস্পতিবার হাসপাতালে স্থাপিত মাতৃদুগ্ধ কর্ণারটি ভেঙ্গে ফেলে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্বাচনী এলাকার মা ও শিশুদের জন্য জ্ঞানের আলো পাঠাগারের বৈধভাবে স্থাপিত মাতৃদুগ্ধ কর্ণারটি কিভাবে তিনি ভেঙ্গে ফেলেন? এই সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে ডাঃ নন্দাসেন গুপ্তা এর অপকর্ম ও দুঃসাহসের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। সেই সাথে এই ফ্যাসিবাদ, দূর্ণীতি পরায়ন স্বাস্থ্যকর্মকর্তার বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করছি। আগামী ৮ সেপ্টেম্বরের মধ্যে এর কোন প্রতিকার না পেলে ৯ সেপ্টেম্বর শনিবার জ্ঞানের আলো পাঠাগারের স্বেচ্ছা সেবক ও সুভাকাঙ্খিরা প্রতিবাদ র‌্যালী, মানব বন্ধন সহ লাগাতার কর্মসুচী পালন করবে বলে জানান এই বক্তা। এসময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- সামাজিক এই সংগঠনটির আমতলী ইউপি টিম লিডার খায়রুল ইসলাম, কলাবাড়ী টিম লিডার সুশান্ত বণিক, রাধাগঞ্জ টিম লিডার সজিব শেখ, স্বেচ্ছা সেবক- ইকবাল শেখ, পারভেজ শেখ, ইস্রাফিল শেখ, হাসান শেখ সহ বিভিন্ন ইউনিয়নের টিম লিডার স্বেচ্ছা সেবক ও বিভিন্ন গনমাধ্যমের সাংবাদিকবৃন্দ।