• ঢাকা
  • রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ০২:৩৪ পূর্বাহ্ন

গোপালগঞ্জের ঐতিহ্যবাহী নিজামকান্দী উচ্চ বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত


প্রকাশের সময় : মার্চ ৮, ২০২৩, ২:৪২ অপরাহ্ন / ৮১
গোপালগঞ্জের ঐতিহ্যবাহী নিজামকান্দী উচ্চ বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক, গোপালগঞ্জঃ গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলার ঐতিহ্যবাহী (১৯৪৬ সালে স্থাপিত) নিজাম কান্দি উচ্চ বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ -২০২৩ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

নিজামকান্দী উচ্চ বিদ্যালয়ের আয়োজনে সোমবার সকালে জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশনের মধ্যদিয়ে জাতীয় পতাকা উত্তোলন শেষে শান্তির প্রতীক পায়রা উড়িয়ে ও মশাল জ্বালিয়ে আনুষ্ঠানিক ভাবে এ অনুষ্ঠানের শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করেন ডা. অসিত কুমার মল্লিক। তিনি কাশিয়ানীর নিজামকান্দী উচ্চ বিদ‍‍্যলয়ের প্রতিষ্ঠাতা স্বর্গীয় সতীশ চন্দ্র মল্লিকের তৃতীয় পূত্র কাশিয়ানীর কৃতি সন্তান, গোপালগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ও গোপালগঞ্জ শেখ সায়েরা খাতুন মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের প্রকল্প পরিচালক হিসেবে কর্মরত রয়েছেন।

নিজামকান্দি উচ্চ বিদ্যালয়ের বর্তমান সভাপতি ও নিজামকান্দী ইউপি চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব কাজী নওশের আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কাশিয়ানী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মেহেদী হাসান।

নিজামকান্দী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বাবু রঞ্জন কুমার মজুমদারের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, কাশিয়ানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. ফিরোজ আলম, উপজেলা উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মাহাফুজা বেগম। এছাড়াও ম্যানেজিং কমিটির দাতা সদস্য ও নিজামকান্দী উচ্চ বিদ‍‍্যলয়ের প্রতিষ্ঠাতার কনিষ্ঠ পুত্র, সুপ্রীম কোর্টের আইনজীবী অসীম কুমার মল্লিক সহ ম্যানেজিং কমিটির অন্যান্য সদস্যবৃন্দ, শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও অভিভাবকবৃন্দ, এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

বিগত বছর গুলোয় বৈশ্বিক করোনা মহামারীর প্রভাবে সরকারি সিদ্ধান্ত মতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়নি। এ বছর উক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কর্তৃক আয়োজিত বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় বিভিন্ন ইভেন্টে শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণ ছিলো চোখে পড়ার মতো। পরে সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভা শেষে প্রধান অতিথি আমন্ত্রিত সকলকে নিয়ে বিভিন্ন ইভেন্টে বিজয়ী শিক্ষার্থীদের মাঝে সনদ ও পুরস্কার তুলে দেন।

এ সময় পুরস্কার বিতরণের পর স্থানীয় শিল্পীদের অংশগ্রহণে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়।