• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ১২:৪৩ পূর্বাহ্ন

খুলনায় মহাসমাবেশ : যশোরে গ্রেফতার আতঙ্কে বিএনপি নেতাকর্মীরা


প্রকাশের সময় : অক্টোবর ১৯, ২০২২, ১০:১২ অপরাহ্ন / ১৮
খুলনায় মহাসমাবেশ : যশোরে গ্রেফতার আতঙ্কে বিএনপি নেতাকর্মীরা

বিশেষ প্রতিনিধি, যশোর: আগামী ২২ অক্টোবর খুলনায় বিএনপির মহাসমাবেশ সফল করার প্রস্তুতি চলছে। ইতোমধ্যে যশোরের বিভিন্ন হাট-বাজারে দলীয় নেতাকর্মীরা প্রচার প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। জেলার ৫০ হাজার নেতাকর্মীকে সমাবেশে যেতে প্রস্তুতি নিয়েছে। গত দুই দিনে অভিযান চালিয়ে বিএনপি অর্ধশতাধিক নেতাকর্মীকে আটক করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। একইসঙ্গে বিএনপির সমাবেশ বানচাল করতে সরকার পরিবহণ বন্ধের যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে। যদিও বিএনপির নেতাকর্মীরা বলছেন, বিকল্প ব্যবস্থায় তারা খুলনার সমাবেশ সফল করবেন।

যশোর জেলা বিএনপির সদস্য সচিব অ্যাডভোকেট সৈয়দ সাবেরুল হক সাবু বলেন, সরকার কত জনবিছিন্ন! একটা রাজনৈতিক দলের বিভাগীয় সমাবেশ করবে সেটা বানচাল করতে নানা ধরণের পরিকল্পনা নিয়েছে। প্রস্তুতি সভা করতে দিচ্ছে না, পরিবহণ বন্ধ করে দিল। আবার বিএনপির কর্মীদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে তাদের গ্রেফতার করছে। তবে আমরা রণকৌশল পরিবর্তন করেছি। সরকার এর আগেরও আমাদের সমাবেশগুলোতে বাধা দিলেও বন্ধ করতে পারেনি; বরং লাখ লাখ মানুষের সমাগম হয়েছে। আমরা বিশ্বাস করি সরকারের সকল অপকৌশল হটিয়ে দিয়ে যশোরের সাধারণ মানুষসহ নেতাকর্মীরা খুলনা বিভাগীয় সমাবেশ সফল করবে। সরকার যেহেতু যাতায়াত ব্যবস্থা বন্ধ করে কৌশল নিয়েছে; আমরাও বিএনপি নেতাকর্মীরাও কৌশল অবলম্বন জনসমাগম করে রেকর্ড সৃষ্টি করবো। বিএনপি নেতাকর্মীদের অভিযোগ, আগামী ২২ অক্টোবর খুলনায় বিএনপির বিভাগীয় গণসমাবেশ বানচাল করতে পুলিশ পরিকল্পিতভাবে গ্রেফতার চালাচ্ছে। এর মাধ্যমে নেতাকর্মীদের মধ্যে আতঙ্ক তৈরি করার চেষ্টা চলছে বলে অভিযোগ করেছেন তারা।

সোমবার রাতে সদরের নরেন্দপুর ইউনিয়ন পরিষদের একজন মেম্বার ও স্থানীয় একজন যুবলীগ কর্মীর ইতোপূর্বে দায়ের করা পৃথক দুটি হামলার পেন্ডিং মামলায় ১৭ নেতাকর্মীকে আটক দেখানো হয়। মঙ্গলবার আটক নেতাকর্মীকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ। বুধবার ভোররাতে মণিরামপুর উপজেলায় ১১ নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এছাড়া এই ২৮ জনসহ জেলার বিভিন্ন উপজেলায় গত দুইদিনে অর্ধশতাধিক নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করেছে।

জেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক দেলোয়ার হোসেন খোকন বলেন, আমরা খুলনার সমাবেশে ৫০ হাজারের বেশি মানুষকে নিয়ে যেতে প্রস্তুতি নিয়েছি। মহাসমাবেশ বাধাগ্রস্ত করতে পুলিশ পরিকল্পিতভাবে নেতাকর্মীদের আটক করেছে। কিন্তু এতে সরকারের উদ্দেশ্য সফল হবে না।

এই বিষয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক সার্কেল) বেলাল হোসাইন জানান, ভাংচুর ও অন্যান্য মামলার আসামিদের গ্রেফতার করা হচ্ছে।