• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ০৩:৫৮ পূর্বাহ্ন

খুলনায় বাস ধর্মঘট, বিএনপি বলছে সমাবেশকে বাধাগ্রস্ত করার অপচেষ্টা


প্রকাশের সময় : অক্টোবর ২১, ২০২২, ১২:০৯ পূর্বাহ্ন / ১৫
খুলনায় বাস ধর্মঘট, বিএনপি বলছে সমাবেশকে বাধাগ্রস্ত করার অপচেষ্টা

মোস্তাইন বীন ইদ্রিস (চঞ্চল),খুলনা: খুলনায় আজ শুক্রবার সকাল ৬টা থেকে শনিবার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত দুদিন আন্তঃজেলা বাস চলাচল বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে জেলা বাস-মিনিবাস মালিক সমিতি ও খুলনা মোটর শ্রমিক ইউনিয়ন। গত মঙ্গলবার রাতে সমিতির নেতারা যৌথভাবে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

খুলনা বাস মিনিবাস কোচ মাইক্রোবাস মালিক সমিতির ভাইস প্রেসিডেন্ট কাজী এনায়েত হোসেন বলেন, জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধি ও মহাসড়কে নসিমন, করিমন, মাহিন্দ্রা, অতুল, ইজিবাইকসহ তিন চাকার যানবাহন চলাচলের প্রতিবাদে মালিক শ্রমিক ঐক্য পরিষদের পক্ষ থেকে শুক্রবার সকাল ৬টা থেকে শনিবার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত দুদিন পরিবহন ধর্মঘটের ডাক দেওয়া হয়েছে। এই সময়ের মধ্যে আমাদের দাবি মানা না হলে প্রয়োজনে সময় আরও বাড়তে পারে।

খুলনা মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন বিপ্লব বলেন, বাস মালিক সমিতির সিদ্ধান্তের সঙ্গে শ্রমিক ইউনিয়ন একাত্মতা প্রকাশ করেছে। সে কারণে আমরাও কোনো গাড়ি চালাবো না।

তবে বিএনপির পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে, ২২ অক্টোবর বিএনপির খুলনা বিভাগীয় গণসমাবেশকে বাধাগ্রস্ত করতে উদ্দেশ্যমূলকভাবে এই বাস ধর্মঘটের ডাক দেওয়া হয়েছে। নেতারা বলছেন গত শনিবারের ময়মনসিংহের সমাবেশ ঘিরেও বাস বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল। এতে চরম দুর্ভোগে পড়েছিল মানুষ।

খুলনা জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কুদরতই-আমির এজাজ খান বলেন, খুলনার বিভিন্ন উপজেলা এবং বিভাগের অন্যান্য ৯টি জেলা থেকে গণসমাবেশে নেতা-কর্মীদের আসা বাধাগ্রস্ত করতেই পরিকল্পিতভাবে বাস বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সে জন্যে ১০ জেলার নেতাকর্মীদের বিকল্পভাবে সমাবেশে আগেভাগে আসতে বলা হয়েছে। যেকোনো মূল্যে আগামী শনিবার (২২ অক্টোবর) নগরীর সোনালী ব্যাংক চত্বরের বিএনপির বিভাগীয় গণসমাবেশ সফল হবেই। সমাবেশ স্থলসহ সমস্ত খুলনা মহানগরী জনসমুদ্রে পরিণত হবে। খুলনা থেকে ১৮টি রুটে প্রতিদিন গড়ে প্রায় ১২শ বাস দেশের চলাচল করে।