• ঢাকা
  • সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ০৭:০৫ অপরাহ্ন

খুলনার বটিয়াঘাটার পল্লীতে ডাকাতি নাটক করতে গিয়ে নিজেই হলো ছিনতাই মামলার আসামি


প্রকাশের সময় : মার্চ ২১, ২০২৩, ১:৫৪ পূর্বাহ্ন / ৬৩
খুলনার বটিয়াঘাটার পল্লীতে ডাকাতি নাটক করতে গিয়ে নিজেই হলো ছিনতাই মামলার আসামি

খুলনা অফিসঃ ডাকাতি করার নাটক করতে গিয়ে নিজেই পেশে গেলেন ছিনতাই মামলায়। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘঠেছে,শনিবার (১৮ মার্চ) দিবাগত রাতে। বটিয়াঘাটা উপজেলার সুরখালী ইউনিয়নের গরিয়াডাঙ্গা এলাকায়। এলাকাবাসি সূত্রে জানা যায়,গরিয়াডাঙ্গা কলেজের ইংরেজি প্রভাষক শেখর কুমারের বাড়িতে শনিবার রাতে ডাকাত দল তার বাড়িতে ঢুকে ঘরে থাকা নগদ টাকা সহ বিভিন্ন মালামাল নিয়ে যায় বলে অভিযোগ ওঠে। ঘটনার রাতে শেখর বাড়িতে ছিলোনা। তার স্ত্রী শেখরের এক ধর্ম বোন ও বোনের পিতা বাড়িতে ছিলো। সূত্রে জানা যায়, প্রভাষক শেখরের ধর্ম বোনের পিতা গ্রামের বাড়ি থেকে জমি বিক্রি করে ১৫/২০ লাখ টাকা নিয়ে শেখরের বাড়িতে আসছিল। এবং ঐ টাকা নিয়ে ঐ বৃদ্ধ শেখরের বাড়িতে রাতে ছিলো। শেখরের পরিবারের অভিযোগ শনিবার রাতে ৪/৫ জন একটি ডাকাত দল তাদের বাড়িতে প্রবেশ করে। পরে তাদের ঘরের গ্লীল ভেঙ্গে ডাকাতদল ঘরের ভিতরে ঢকে। পরেরদিন বিষয়টি এলাকায় জানা জানি হলে বটিয়াঘাটা থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। পরে জিজ্ঞাসাবাদের জন‍্য শেখর ও তার স্ত্রীকে থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। রবিবার বিকেলে ডাকাতি ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে গাওঘরা এলাকার সোবান নামে একজনকে পুলিশ আটক করেন। স্থানীয় ইউপি সদস্য প্রসাদ চন্দ্র রায় বলেন,সংবাদ শুনে ঘটনাস্থালে গিয়েছিলাম। ডাকাতি হয়েছে বলে দাবি করেন ভুক্তভোগী পরিবার। নামপ্রকাশ না করার সর্থে অনেকে বলেন, শেখরের স্ত্রীর গলায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। শেখরের ধর্ম বোনকে আহত করে ডাকাতরা। বটিয়াঘাটা থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ শওকত কবীর বলেন,ঘটনাটি ডাকাতি নয়। প্রভাষক মিঃ শেখর তার বাড়িতে একজন মহিলাকে গোপনে স্ত্রী হিসেবে বাড়িতে রাখতো। সাতক্ষীরা থেকে এক মহিলা জমি বিক্রি করে প্রায় ১৫ লাখ টাকা নিয়ে শেখরের বাড়িতে আসে। তখন শেখর ঐটাকা আত্মসাতের জন‍্য ষড়যন্ত্রমুলক নাটক সাজিয়ে প্রচার করে তার বাড়িতে ডাকাতি হয়েছে। কিন্তু পরে জানা যায়, ঘটনাটি ঠাকাতি নয়,ছিনতাই। শেখর ও তার স্ত্রী এবং সোবান নামের তিনজনকে আটক করা হয়েছে। সোবানের কাছ থেকে ৪৯ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়েছে। মামলা প্রস্তুতি চলছে।