• ঢাকা
  • বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২:০১ অপরাহ্ন

খুলনার পাইকগাছা-কয়রার সংসদ সদস্য রশীদুজ্জামানের ফেসবুকে স্ট্যাটাস : জনমনে স্বস্তি


প্রকাশের সময় : ফেব্রুয়ারী ১২, ২০২৪, ৮:০৬ অপরাহ্ন / ৬৩
খুলনার পাইকগাছা-কয়রার সংসদ সদস্য রশীদুজ্জামানের ফেসবুকে স্ট্যাটাস : জনমনে স্বস্তি

মোঃ মানছুর রহমান জাহিদঃ খুলনা-৬ আসনের সংসদ সদস্য, লোনা জলে সোনার ছেলে মোঃ রশীদুজ্জামান তার নিজ নামিও ফেসবুক আইডিতে গত ১০ই ফেব্রুয়ারি লিখে বলেছেন যে, আমার নির্বাচনী এলাকা পাইকগাছ-কয়রার সকল সম্মানিত নাগরিক কে বিনয়ের সঙ্গে জানাচ্ছি যে, আপনাদের ভালবাসা, স্নেহ, মমতায় আমি সিক্ত হয়েছি, আপনারা ব্যাপক ভোটের ব্যবধানে নৌকা প্রতীককে বিজয়ী করেছেন এর জন্য আমি আপনাদের কাছে চির ঋণী হয়ে থাকবো। বর্তমান সময়ে আমি দু একটি বিষয় করজোড়ে আপনাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে চাই। প্রথমত, আমি লক্ষ্য করছি, এই সময়ের মধ্যে এলাকায় যে সকল ধর্মীয় অনুষ্ঠান বা সামাজিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হচ্ছে সেখানে আমি উপস্থিত থাকতে না পারলেও আমার নাম ব্যানার বা পোষ্টারে প্রধান অতিথি হিসেবে লিখছেন। এটা আমার পছন্দ নয়। আমার বক্তব্য, যেখানে আমি থাকবো, সেখানে যদি আমি উপযুক্ত হই তবে আমাকে প্রধান অতিথি করতে পারেন, কিন্তু আমি যেখানে থাকতে পারবো না সেখানে আমাকে প্রধান অতিথি না করে এলাকার কোন গন্যমান্য ব্যাক্তিকে সম্মানিত করার জন্য অনুরোধ থাকলো।

দ্বিতীয়ত, এলাকার অনেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে এমপি হিসেবে আমাকে সংবর্ধনা দেওয়ার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন। এক্ষেত্রে আমার পরামর্শ, আপনারা কোন প্রকার আনুষ্ঠানিকতা, ফুল দিয়ে বরণ করা বা প্রতিষ্ঠানের ছাত্র-ছাত্রীদের দাঁড় করিয়ে শোভা বর্ধন করা এ কাজ গুলো না করার জন্য অনুরোধ থাকলো।

এ ধরনের আনুষ্ঠানিকতায় আমি অসস্থি বোধ করি এবং আমার স্বাভাবিকতা নষ্ট হয়। আমার পরামর্শ, আপনারা প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তি, শিক্ষক-শিক্ষিকাদের উপস্থিতিতে প্রতিষ্ঠানের উন্নয়নকল্পে একটি পরামর্শ সভা বা একটি মতবিনিময় সভা করবেন অনানুষ্ঠানিক ভাবে। আমার পিতা-মাতা আদর করে আমার একটা নাম রেখেছিল। সেই নামটাই আমার কাছে প্রিয় নাম। এই নামেই আমি আপনাদের মাঝে বেঁচে থাকতে চাই। আপনাদের ভোটে এমপি নির্বাচিত হয়েছি। এমপি থাকবো সংসদে, এমপি থাকবো অফিস-আদালতে। আপনাদের মাঝে থাকতে চাই, কারো ভাই, চাচা, মামা, খালু, দাদা, নানা ইত্যাদি। যারা আমার বন্ধু, যারা আমার বয়োজ্যেষ্ঠ, যারা নাম ধরে ডাকতে অভ্যস্ত, তারা নাম ধরে ডাকলে আমি খুশি হবো। আশাকরি আমার কথা গুলো সকলে বিবেচনায় নিবেন। আমাকে আমার মত করে আপনাদের মাঝে সাধারন ভাবে থাকতে দিন। তাহলে মনের আনন্দে কাজ করতে পারবো। সবাইকে ধন্যবাদ।

এমন লেখা পড়ে এলাকার জনগণের মধ্যে ব্যাপক উদ্দীপনার সারা ফেলেছে। পাইকগাছা-কয়রার অনেকের সাথে আলাপকালে এই প্রতিনিধিকে তারা জানান, আমরা পাইকগাছা কয়রার মানুষ আমাদের সংসদ সদস্য মোঃ রশীদুজ্জামান মোড়লের কিছু কথা আইডিটি লেখা দেখে আমাদের মনে ও প্রাণে এবার আশার আলো জেগেছে যে অন্যান্য সদস্যর মতো
নিরাশা না হয়ে আমরা এবার স্থানীয় সংসদ সদস্যকে আশার আলোয় বুক বেঁধে নিজেদের কে গর্বিত মনে করছি। আমাদের সংসদ সদস্যের মতো সারা বাংলাদেশের সংসদ সদস্য একই যেন হন এই আশা ব্যক্ত করেছেন স্থানীয় জনগণ।