• ঢাকা
  • সোমবার, ১৭ Jun ২০২৪, ০৭:৫৬ পূর্বাহ্ন

খুলনার পাইকগাছা উপজেলা নির্বাচনকে ঘিরে চায়ের দোকানে দোকানে জমে উঠেছে নির্বাচনী হাওয়া


প্রকাশের সময় : মে ২২, ২০২৪, ৬:১৫ অপরাহ্ন / ২০
খুলনার পাইকগাছা উপজেলা নির্বাচনকে ঘিরে চায়ের দোকানে দোকানে জমে উঠেছে নির্বাচনী হাওয়া

মানছুর রহমান জাহিদঃ আসন্ন পাইকগাছা উপজেলা পরিষদ নির্বাচন-২০২৪ সামনে রেখে উপজেলার সর্বত্রই এখন নির্বাচনী হাওয়া বইছে। আগামী ২৯ মে অনুষ্ঠিত হবে নির্বাচন।

নির্বাচনকে ঘিরে প্রতিদিনই কাক ডাকা ভোর হতে গভীর রাত পর্যন্ত নির্বাচনী এলাকায় কর্মী সমর্থকদের সাথে নিয়ে প্রচার প্রচারণা চালাতে ব্যস্ত সময় পার করছেন প্রার্থীরা। আর নির্বাচনের সঙ্গে সঙ্গে উপজেলার হাট-বাজার ও গ্রাম-গঞ্জের প্রতিটি চায়ের দোকানগুলোতে শুরু হয়েছে নির্বাচনী আলোচনা।

সরজমিনে এ উপজেলার বিভিন্ন চায়ের দোকানে দেখা যায়, ভোটাররা নির্বাচনী আলাপে মশগুল। একজন ভোটার এলাকার এক প্রার্থীর পক্ষে কথা বললেন, তার প্রশংসা করলেন তো আরেক ভোটার আরেক প্রার্থীর প্রশংসা করে তাকেই এগিয়ে রাখলেন।

এ নিয়ে খানিকটা তর্কও হলো দুই ভোটারের মধ্যে। আর সারা উপজেলা ব্যাপী এখন একই চিত্র। শুধু ভোটের আলাপ। তীব্র গরমের সাথে গরম চায়ের চুমুকে চুমুকে চলছে ভোটের আলাপ। সেই আলাপের কোনো শেষ নেই। ভোর থেকে শুরু করে গভীর রাত পর্যন্ত শুধু ভোটের আলাপের হাওয়াই বইছে।

উপজেলার কপিলমুনি ইউনিয়নের আগড়ঘাটা বাজারের নুরইসলাম নামে এক চা বিক্রেতা বলেন, আগে যেখানে প্রতিদিন ৮০ থেকে ১’শ কাপ চা বিক্রি হতো আমার দোকানে। তবে সামনে নির্বাচনকে ঘিরে এখন প্রতিদিন চা বিক্রি হচ্ছে প্রায় ১৫০ থেকে ২’শ কাপ।

উপজেলার, গদাইপুর, নতুন বাজার, কপিলমুনি, মাহমুদকাটি, হরিঢালী, সনাতন কাটি, রাড়ুলী, বাঁকা বাজার, কাশিমনগড় , শ্যামনগড়, সোলাদানা, গড়ইখালী, চাদখালী, আলমতলা, লস্কর, লক্ষী খোলা ও পৌরসভাসহ উপজেলার আরও বিভিন্ন হাট বাজার ঘুরে একই চিত্র দেখা যায়। এছাড়াও অনেক চায়ের দোকানদারেরা জানান বর্তমানে চায়ের দোকান গুলোতে নেতা কর্মী ও সমর্থকদের ভিড় লেগেই থাকে। সেই সঙ্গে সাধারণ মানুষেরও আনাগোনা বেড়েছে। সবকিছু মিলে ভালোই বিক্রি হচ্ছে চা।
এ দিকে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ ভোটের মধ্য দিয়ে সৎ ও আদর্শবান প্রার্থীকে নির্বাচিত করতে চায় সাধারণ ভোটাররা।