• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৬:০১ পূর্বাহ্ন

খুলনার পাইকগাছায় বিয়ের আসর থেকে বর উঠে যাওয়ায় কনের আত্মহত্যা : থানায় মামলা


প্রকাশের সময় : ডিসেম্বর ২, ২০২৩, ৮:৪৮ অপরাহ্ন / ১০৬
খুলনার পাইকগাছায় বিয়ের আসর থেকে বর উঠে যাওয়ায় কনের আত্মহত্যা : থানায় মামলা

মোঃ মানছুর রহমান জাহিদঃ খুলনার পাইকগাছার লতা ইউনিয়নে লগ্ন পেরিয়ে যাওয়ায় বিয়ে না করে বর চলে যাওয়ায় গলায় রশি পেঁচিয়ে মিতু মণ্ডল (১৯) নামের এক তরুণীর আত্মহত্যার অভিযোগ উঠেছে। গতকাল শুক্রবার বিকেল ৫টার দিকে মুনকিয়া গ্রামে নিজ বাড়িতে গলায় রশি প্যাঁচানো অবস্থায় ঘরের আড়ার সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় তাঁকে পাওয়া যায়। এ সময় মিতুর বাবা তাঁকে নামিয়ে পাইকগাছা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে মিতু মণ্ডল মারা যান। এ ঘটনায় মৃত্যুর প্ররোচনায় থানায় মামলা হয়েছে।

মিতু মণ্ডলের বাবা ঠাকুরদাশ মণ্ডল বলেন, আমার মেয়ের সঙ্গে বটিয়াঘাটা উপজেলার কায়ুমখালীর কৃষ্ণ মণ্ডলের ছেলে সুদিপ্ত মণ্ডলের (২২) গত সোমবার বিয়ের দিন ধার্য ছিল। বিয়েতে সঠিক সময়ে ছেলেপক্ষ না আসায় লগ্ন পেরিয়ে যায়। পরের লগ্নে বিয়ে দিতে চাইলে ছেলের বাবা রাজি হননি। পরে ছেলের বাবার সঙ্গে কথা-কাটাকাটি হয়। একপর্যায় ছেলে বিয়ের আসর থেকে চলে যায়। মেয়ে এতে মানসিকভাবে ভেঙে পড়ে। এ কারণে গত শুক্রবার বিকেল ৫টার দিকে গলায় রশি পেঁচিয়ে ঘরের আড়ায় ঝুলে পড়ে। তাকে নামিয়ে পাইকগাছা হাসপাতালে নিয়ে আসি। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে সে মারা যায়।

পাইকগাছা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, শুক্রবার গলায় রশি পেঁচিয়ে একটি মেয়ে আত্মহত্যা করে। তার মরদেহ সুরতহাল শেষে শনিবার সকালে ময়নাতদন্তের জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মৃত্যুর প্ররোচনায় শনিবার থানায় বরের বাবা কৃষ্ণ মণ্ডল ও বর সুদিপ্ত মণ্ডলের নামে মামলা করেছেন মেয়ের বাবা।