• ঢাকা
  • সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ০৭:২৬ অপরাহ্ন

খালেদা জিয়া ইস্যুতে রাষ্ট্রপতির সাক্ষাত চান ৫ দলের শীর্ষ নেতারা


প্রকাশের সময় : ডিসেম্বর ৮, ২০২১, ৪:০৭ অপরাহ্ন / ১৪৮
খালেদা জিয়া ইস্যুতে রাষ্ট্রপতির সাক্ষাত চান ৫ দলের শীর্ষ নেতারা

ঢাকা : বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার চিকিৎসার বিষয়ে কথা বলতে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের সাক্ষাৎ চেয়ে আবেদন করেছেন পাঁচটি রাজনৈতিক দলের শীর্ষ নেতারা। দল পাঁচটি হলো বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টি, ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এনডিপি), ন্যাশনাল পিপলস পার্টি (এনপিপি), বাংলাদেশ জাতীয় দল ও লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এলডিপি)।

ন্যাশনাল পিপলস পার্টির চেয়ারম্যান ড. ফরিদুজ্জামান ফরহাদ এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, এর আগে আমরা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করেছিলাম। আমাদের সিদ্ধান্ত ছিল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করে যদি কার্যকরী কোনও কিছু না হয়। সে ক্ষেত্রে আমরা রাষ্ট্রপতির কাছে যাব। আমাদের পক্ষ থেকে কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম রাষ্ট্রপতির সাক্ষাৎ চেয়ে আবেদন করেছেন। গত ২৫ নভেম্বর রাষ্ট্রপতির সাক্ষাৎ চেয়ে বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতির সামরিক সচিব বরাবর এই আবেদন করা হয়।

জানা যায়, দলগুলোর পক্ষে আবেদন করেন কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম ও ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টির চেয়ারম্যান মো. আবু তাহের।

আবেদনে বলা হয়েছে, আপনি বাংলাদেশের সাংবিধানিক অভিভাবক এবং সশস্ত্র বাহিনীর সর্বাধিনায়ক। মানুষের কষ্টে আপনি বিচলিত হন, দেশবাসীর চিন্তা ও স্বপ্নকে আপনি লালন করেন এবং আপনি একজন সুহৃদ ব্যক্তি। এই প্রেক্ষাপটে আপনার বরাবর আমাদের বিনীত ও আন্তরিক আবেদন হলো, আপনার শত ব্যস্ততা সত্ত্বেও আমাদের সাক্ষাতের সময় দান করে বাধিত করবেন।

এর আগে গত ২০ নভেম্বর সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দফতরে গিয়ে পাঁচটি দলের শীর্ষস্থানীয় নেতারা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে একই বিষয়ে দেখা করেন এবং একটি স্মারকলিপি দেন।

স্মারকলিপিতে বলা হয়, বিএনপির চেয়ারপারসন ও ২০ দলীয় জোট নেত্রী এবং সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া গুরুতর অসুস্থ। রাজনৈতিক মতপার্থক্যের ঊর্ধ্বে উঠে মানবিক কারণে তাঁর সুচিকিৎসা প্রয়োজন। এটা সত্য, রাজনৈতিকভাবে হোক বা অরাজনৈতিকভাবে হোক, সরকার তাঁর প্রতি সহানুভূতি প্রদান করেছে, সে জন্য আমরা কৃতজ্ঞ। আপনার মাধ্যমে আমরা প্রধানমন্ত্রীর নিকট আবেদন করছি খালেদা জিয়ার চিকিৎসার জন্য তাঁকে বিদেশে পাঠানোর অনুমতি প্রদান করুন এবং ব্যবস্থা করে দিন। আপনাদের সদয় সিদ্ধান্ত রাজনৈতিক ইতিহাসে সৌজন্য ও মহানুভবতার একটি উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে।

স্মারকলিপি দেওয়ার সময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম, ন্যাশনাল পিপলস পার্টির চেয়ারম্যান ফরিদুজ্জামান ফরহাদ, ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টি চেয়ারম্যান এম এ তাহের, বাংলাদেশ জাতীয় দলের সৈয়দ এহসানুল হুদা ও লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির মহাসচিব শাহাদাত হোসেন সেলিম।