• ঢাকা
  • শুক্রবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ০৩:৫৫ অপরাহ্ন

কুমিল্লা দেবিদ্বার ঈদের দিন জানাজা,শান্তর বাড়িতে ১২টি গরু হয়নি কোরবানি


প্রকাশের সময় : জুলাই ১১, ২০২২, ১১:১৫ পূর্বাহ্ন / ৪২
কুমিল্লা দেবিদ্বার ঈদের দিন জানাজা,শান্তর বাড়িতে ১২টি গরু হয়নি কোরবানি

মোঃ রাসেল সরকারঃ কুমিল্লায় দুই বাড়ির আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দ্বন্দ্বে খুন হওয়া মেহেদী হাসান শান্তর বাড়িতে কোরবানি দেওয়া হয়নি ১২টি গরু ও বেশ কয়েকটি ছাগল।

কুমিল্লার দেবিদ্বার উপজেলার ফতেহাবাদ ইউনিয়নের নূরপুর গ্রামের সরকার বাড়িতে কোরবানির জন্য কেনা হয়েছিল ১২টি গরু। কিন্তু ঈদের আগের দিন শনিবার (৯ জুলাই) বিকেলে ওই বাড়ির জাকির হোসেনের ছেলে মেহেদী হাসান শান্ত (২০) খুন হয়। ঘটনার পর সরকার বাড়ির ঈদ আনন্দের পরিবর্তে বইছে শোকের হাওয়া। কোরবানির জন্য ১২ গরু কেনা হলেও ঈদের দিন একটিও কোরবানি দেওয়া হয়নি। পুরো এলাকা জুড়ে শোকের ছায়া নেমেছে।

ওই বাড়ির বাসিন্দা হানিফ মিয়া বলেন, ভীষণ বেদনায় দিন কাটছে। ঈদ আনন্দের বিপরীতে পুরো এলাকায় শোকের ছায়া নেমেছে। কীসের কোরবানি, কীসের গরু, একটা মার্ডার হয়েছে। এই শোক কাটিয়ে উঠার পর ভেবে দেখা যাবে কী করব সবাই।

এদিকে ঈদুল আযহার দিন মেহেদী হাসান শান্তর লাশ ময়নাতদন্ত শেষে তার নিজ বাড়িতে আনা হয়। বিকেলে তার জানাজার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। এতে হাজারো মানুষ অংশগ্রহণ করেন। দেবিদ্বার উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ খুন হওয়া শান্তর মা-বাবাকে সান্ত্বনা দেন।

অপরদিকে ঘটনার রাতে খুন হওয়া মেহেদী হাসান শান্তর বাবা জাকির হোসেন বাদী হয়ে ৬ জনের নাম উল্লেখ করে এ আরও ২০ অজ্ঞাত পরিচয়ের জনকে উল্লেখ করে দেবিদ্বার থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। এতে প্রধান আসামি করা হয় নূরপুর গ্রামের খোয়াজ আলীর ছেলে আল আমিনকে।

মামলা দায়েরের পর পুলিশ অভিযান চালিয়ে ২ নম্বর আসামি নূরপুর গ্রামের মোসলেহ উদ্দিনের ছেলে সাদ্দাম ও ৬ নম্বর আসামি একই গ্রামের আবুল কাশেমের ছেলে মোখলেসকে গ্রেপ্তার করে।

দেবিদ্বার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কমল কৃষ্ণ ধর গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, গ্রেপ্তারকৃত আসামিদের রোববার কোর্টে পাঠানো হয়েছে। প্রধান আসামি আল আমিনসহ অন্যদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।