• ঢাকা
  • রবিবার, ১৯ মে ২০২৪, ০৮:৩৯ পূর্বাহ্ন

কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে পূর্ব চাঁদপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ


প্রকাশের সময় : ফেব্রুয়ারী ১২, ২০২৩, ১১:১৬ পূর্বাহ্ন / ৬৭
কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে পূর্ব চাঁদপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক,কুমিল্লাঃ কুমিল্লা নাঙ্গলকোট উপজেলা ২নং পেরিয়া ইউনিয়নের পূর্ব চাঁদপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোহাব্বতের রহমানের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। এ বিষয়ে গত বুধবার নাঙ্গলকোট উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার,  নাঙ্গলকোট উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবং কুমিল্লা জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার বরাবর লিখিত অভিযোগ প্রধান করেন স্থানীয় নেতৃবৃন্দ।

অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, বিদ্যালয়টি রেজিস্ট্রার থেকে জাতীয় করণ করা হলেও  অত্র বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোহাব্বতে রহমানের অবহেলার কারণে ও বিদ্যালয়ের জন্য বরাদ্দকৃত সরঞ্জাম কম্পিউটার, প্রিন্টার, ওয়াইফাই রাউটার ও মাল্টিমিডিয়া প্রজেক্টর সরকার বরাদ্দকৃ অর্থ থেকে নিজ ব্যাক্তিগত দোকানে ব্যাবসায়িক কাজে ব্যাবহার করেন। বিদ্যালয়ের অবকাঠামো উন্নয়নের জন্য সরকারের বরাদ্দকৃত অর্থ উন্নয়ন কাজে ব্যায় না করে আত্মসাৎ করেন।

স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, বিদ্যালয়টি রেজিস্ট্রার থেকে জাতীয়করণ করার পর থেকে প্রধান শিক্ষক মোহাব্বতে রহমানের অবহেলায় মানসম্মত পড়ালেখা ও এই বিদ্যালয়টির কোন রকম অবকাঠামো উন্নয়ন কাজ না হওয়ায় বিদ্যালয়টির ক্যাচমেন্ট এরিয়া অনেক বড় হওয়া সত্ত্বেও ছাত্র-ছাত্রী সংখ্যা ৮০ জনের উপরে নয়।

স্থানীয় একাধিক ব্যাক্তি বিদ্যালয়টির প্রদান শিক্ষকের বিরুদ্ধে অনিয়ম ও দুর্নীতি অভিযোগের সত্যতা জানিয়ে বলেন, তিনি নিয়মিত বিদ্যালয় থাকেন না এবং বিদ্যালয় চলাকালীন পাশে একটি ফার্মেসি দোকান করে সেখানে সময় কাটান বিদ্যালয়ের ভর্তির টাকা, পরীক্ষার ফি এবং পুরনো বই বিক্রি করে টাকা আত্মসাৎ করেন বলে অভিযোগ করেন এবং তার পাশাপাশি এই অযোগ্য প্রধান শিক্ষককে অত্র বিদ্যালয় থেকে সরিয়ে নতুন যোগ্যতা সম্পন্ন প্রধান শিক্ষক নিয়োগ দেয়ার দাবী জানান তারা।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত শিক্ষক মোহাব্বত রহমানের কাছে অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি সাংবাদিকদের বক্তব্য না দিয়ে বিষয়টি বিভিন্ন ভাবে এড়িয়ে যান।

নাঙ্গলকোট উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মিনহাজ উদ্দিন বলেন, বিষয়টি অবগত হয়েছি তদন্ত সাপেক্ষে তার বিরুদ্ধে ব্যাবস্থা নেওয়া হবে।

নাঙ্গলকোট উপজেলা নির্বাহী অফিসার রায়হান মেহবুব বলেন, বিষয়টি আপনাদের মাধ্যমে আমি অবগত হয়েছি, আমি ডেকে এনে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করবো এবং বিষয়টি সরজমিনে গিয়ে তদন্ত করবো সত্যতা পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেব।