• ঢাকা
  • সোমবার, ১৭ Jun ২০২৪, ০৪:১৮ পূর্বাহ্ন

ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক শ্রেষ্ঠ চেয়ারম্যান তসিকুলের ছবি ভাংচুর এসএম রুবেল চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধিঃ চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার আমনুরা ৩ নাম্বার ঝিলিম ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক শ্রেষ্ঠ চেয়ারম্যান তসিকুল ইসলাম তসিরের পরিষদের গেটের পাশে প্রাচীর দেয়ালে মোরাল টাইলস বসানো ছবি রাতের অন্ধকারে কে বা কারা ভেঙে গুড়িয়ে দিয়েছে। অভিযোগ উঠেছে,হিংসার বর্সবর্তী হয়ে সাবেক এই শ্রেষ্ঠ চেয়ারম্যানের ছবি ভাংচুর করা হয়েছে বলে স্হানীয়রা ধারণা করছে।বিষয়টি নিয়ে বর্তমান চেয়ারম্যান লুৎফর রহমানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন বিষয়টি আমি পুলিশের কাছে শুনেছি কে বা কারা ভাংচুর করেছে তা জানিনা। অপরদিকে সাবেক চেয়ারম্যান তসিকুল ইসলাম তসিরের সাথে কথা হলে তিনি বলেন আমি চেয়ারম্যান থাকা কালে জেলার শ্রেষ্ঠ ইউনিয়ন পরিষদ ও শ্রেষ্ঠ চেয়ারম্যান হওয়ায় সেই সমায় পরিষদ এই ছবিটি লাগিয়েছে। ছবিটি ভাংচুর করে তারা শুধু আমাকে মুছে ফেলতে চায়নি শ্রেষ্ঠ ইউনিয়ন পরিষদের চিহ্ন মুছে ফেলার চেষ্টা করেছে।স্হানীয় পুলিশ ফাঁড়ির দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তার সাথে কথা হলে তিনি বলেন ছবি ভাংচুরের বিষয় অবগত আছি এখন পযন্ত কেউ অভিযোগ দাখিল করেনী অভিযোগ দাখিল করলে আমরা তদন্ত পূর্বক ব্যাবস্তা গ্রহণ করবো। ঐ ইউনিয়নের বাসিন্দা আব্দুল মোতালেব সহ আরো অনেকে বলেন – ইউনিয়ন পরিষদের গেটে এধরণের একটি ঘটনা ঘটেছে পাশে পুলিশ ফাঁড়ি রয়েছে এবং গ্রাম পুলিশ পরিষদের পাহারাদার রয়েছে অথচ কেউ বিষয় অবগত নয়।তাহলে কি হিংসার বর্সবর্তী হয়ে এই ঘটনা ঘটেছে।তারা বিষয়টি তদন্ত পূর্বক ব্যাবস্তা গ্রহণে জেলা প্রশাসনের প্রতি জোর দাবি জানিয়েছে।


প্রকাশের সময় : ফেব্রুয়ারী ১৭, ২০২৩, ৯:০০ অপরাহ্ন / ৭৪
ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক শ্রেষ্ঠ চেয়ারম্যান তসিকুলের ছবি ভাংচুর  এসএম রুবেল চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধিঃ  চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর  উপজেলার আমনুরা ৩ নাম্বার ঝিলিম ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক শ্রেষ্ঠ চেয়ারম্যান তসিকুল ইসলাম তসিরের পরিষদের গেটের পাশে প্রাচীর দেয়ালে মোরাল   টাইলস বসানো ছবি রাতের অন্ধকারে কে বা কারা ভেঙে গুড়িয়ে দিয়েছে।  অভিযোগ উঠেছে,হিংসার বর্সবর্তী হয়ে সাবেক এই শ্রেষ্ঠ চেয়ারম্যানের ছবি ভাংচুর করা হয়েছে বলে স্হানীয়রা ধারণা করছে।বিষয়টি নিয়ে বর্তমান চেয়ারম্যান লুৎফর রহমানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন বিষয়টি আমি পুলিশের কাছে শুনেছি কে বা কারা ভাংচুর করেছে তা জানিনা।    অপরদিকে সাবেক চেয়ারম্যান  তসিকুল ইসলাম তসিরের সাথে কথা হলে তিনি বলেন আমি চেয়ারম্যান থাকা কালে জেলার শ্রেষ্ঠ ইউনিয়ন পরিষদ ও শ্রেষ্ঠ চেয়ারম্যান হওয়ায় সেই সমায় পরিষদ এই ছবিটি লাগিয়েছে। ছবিটি ভাংচুর করে তারা শুধু আমাকে মুছে ফেলতে চায়নি শ্রেষ্ঠ ইউনিয়ন পরিষদের চিহ্ন মুছে ফেলার চেষ্টা করেছে।স্হানীয় পুলিশ ফাঁড়ির দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তার সাথে কথা হলে তিনি বলেন ছবি ভাংচুরের বিষয় অবগত আছি  এখন পযন্ত কেউ অভিযোগ দাখিল করেনী অভিযোগ দাখিল করলে আমরা তদন্ত পূর্বক ব্যাবস্তা গ্রহণ করবো।  ঐ ইউনিয়নের বাসিন্দা আব্দুল মোতালেব সহ আরো অনেকে বলেন – ইউনিয়ন পরিষদের গেটে এধরণের একটি ঘটনা ঘটেছে পাশে পুলিশ ফাঁড়ি রয়েছে এবং গ্রাম পুলিশ পরিষদের পাহারাদার রয়েছে অথচ কেউ বিষয় অবগত নয়।তাহলে কি হিংসার বর্সবর্তী হয়ে এই ঘটনা ঘটেছে।তারা বিষয়টি তদন্ত পূর্বক ব্যাবস্তা গ্রহণে জেলা প্রশাসনের প্রতি জোর দাবি জানিয়েছে।

নিজস্ব প্রতিবেদক,চাঁপাইনবাবগঞ্জঃ চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার আমনুরা ৩ নাম্বার ঝিলিম ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক শ্রেষ্ঠ চেয়ারম্যান তসিকুল ইসলাম তসিরের পরিষদের গেটের পাশে প্রাচীর দেয়ালে মোরাল টাইলস বসানো ছবি রাতের অন্ধকারে কে বা কারা ভেঙে গুড়িয়ে দিয়েছে।

অভিযোগ উঠেছে,হিংসার বর্সবর্তী হয়ে সাবেক এই শ্রেষ্ঠ চেয়ারম্যানের ছবি ভাংচুর করা হয়েছে বলে স্হানীয়রা ধারণা করছে। বিষয়টি নিয়ে বর্তমান চেয়ারম্যান লুৎফর রহমানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন বিষয়টি আমি পুলিশের কাছে শুনেছি কে বা কারা ভাংচুর করেছে তা জানিনা।

অপরদিকে সাবেক চেয়ারম্যান তসিকুল ইসলাম তসিরের সাথে কথা হলে তিনি বলেন, আমি চেয়ারম্যান থাকা কালে জেলার শ্রেষ্ঠ ইউনিয়ন পরিষদ ও শ্রেষ্ঠ চেয়ারম্যান হওয়ায় সেই সমায় পরিষদ এই ছবিটি লাগিয়েছে। ছবিটি ভাংচুর করে তারা শুধু আমাকে মুছে ফেলতে চায়নি শ্রেষ্ঠ ইউনিয়ন পরিষদের চিহ্ন মুছে ফেলার চেষ্টা করেছে।স্হানীয় পুলিশ ফাঁড়ির দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তার সাথে কথা হলে তিনি বলেন ছবি ভাংচুরের বিষয় অবগত আছি এখন পযন্ত কেউ অভিযোগ দাখিল করেনী অভিযোগ দাখিল করলে আমরা তদন্ত পূর্বক ব্যাবস্তা গ্রহণ করবো।

ইউনিয়নের বাসিন্দা আব্দুল মোতালেব সহ আরো অনেকে বলেন – ইউনিয়ন পরিষদের গেটে এধরণের একটি ঘটনা ঘটেছে পাশে পুলিশ ফাঁড়ি রয়েছে এবং গ্রাম পুলিশ পরিষদের পাহারাদার রয়েছে অথচ কেউ বিষয় অবগত নয়।তাহলে কি হিংসার বর্সবর্তী হয়ে এই ঘটনা ঘটেছে।তারা বিষয়টি তদন্ত পূর্বক ব্যাবস্তা গ্রহণে জেলা প্রশাসনের প্রতি জোর দাবি জানিয়েছে।