• ঢাকা
  • শনিবার, ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৬:১২ অপরাহ্ন

আওয়ামীলীগ পালানো দল না : শেখ সেলিম এমপি


প্রকাশের সময় : নভেম্বর ২৯, ২০২২, ৯:৪৭ অপরাহ্ন / ৩৪
আওয়ামীলীগ পালানো দল না : শেখ সেলিম এমপি

কে এম সাইফুর রহমান, গোপালগঞ্জঃ আওয়ামীলীগ পালানোর দল না, কোনদিন পালায়নি। কোন অনির্বাচিত ব্যক্তির অধীনে জনগণের ক্ষমতা দেওয়া যাবে না। তত্ত্ববধায়ক সরকারের অধীনে কোন নির্বাচন হবে না, আগেই আদালত তা রায় দিয়েছে। বিশ্বের অন্যান্য দেশে যেভাবে নির্বাচন হয়, বাংলাদেশেও সেভাবে নির্বাচন হবে। বাংলাদেশে আর কোনদিন আজিজ—সাদেক মার্কা নির্বাচন হতে দেওয়া হবে না। বিএনপি ১০ ডিসেম্বর ঢাকা উল্টে-পাল্টে ফেলবে, ২৫ লক্ষ লোক-সমাগম করবে। ওখানে ২৫ শত লোকও আসবে না। মঙ্গলবার (২৯ নভেম্বর) গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলা আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আওয়ামীলীগের অন্যতম প্রেসিডিয়াম সদস্য ও গোপালগঞ্জ-২ আসনের বারবার নির্বাচিত সংসদ সদস্য ড. শেখ ফজলুল করিম সেলিম এমপি এসব কথা বলেছেন। শেখ সেলিম আরও বলেন, বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে ওরা স্বাধীনতাকে হত্যা করেছে, মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে হত্যা করেছে, অসাম্প্রদায়িক রাজনীতি হত্যা করেছে, স্বাধীনতার চেতনাকে হত্যা করেছে। বিএনপি খুনিদের দল। জিয়াউর রহমান এ দল সৃষ্টি করেছে। এরা কোন রাজনৈতিক দল না। এরা পাকিস্তানের এজেন্ট। একাত্তরের পরাজিত শক্তি ও বিএনপি এক হয়ে সরকার পতন ঘটাতে চায়। তিনি আরও বলেন, পঁচাত্তরের ১৫ আগস্ট স্বপরিবারে বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে একটি নির্বাচিত সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করে একাত্তরের পরাজিত শক্তি রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা দখল করে। ওরা শুধু বঙ্গবন্ধুকে নয়; জাতীয় ৪ নেতাকে হত্যা করেছে। পরবতীর্তে যারা যুদ্ধাপরাধের দায়ে কারাগারে ছিলো, তাদেরকে বের করে এনে জিয়াউর রহমান দল গঠন করে। এদের কাছ থেকে আজ আমাদের মানবতা ও গণতন্ত্র শিখতে হবে? একাত্তর সালে পাকিস্তানীরা বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করার সাহস পায়নি। অথচ বঙ্গবন্ধু যে বাঙালি জাতির জন্য সারা জীবন কষ্ট করেছেন, তারাই তাঁকে হত্যা করে।

কাশিয়ানী উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. মোক্তার হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ত্রি—বার্ষিক সম্মেলনে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, আওয়ামীলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও গোপালগঞ্জ-১ আসনের বারবার নির্বাচিত সংসদ সদস্য মুহাম্মদ ফারুক খান, কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম ও এস এম কামাল হোসেন এবং ঢাকা মহানগর দক্ষিণ মহিলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও সংরক্ষিত নারী আসনের এমপি নার্গিস রহমান।

এর আগে গোপালগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা চৌধুরী এমদাদুল হক সম্মেলনের উদ্বোধন করেন। প্রধান বক্তা ছিলেন জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব আলী খান। অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে সম্মেলনের প্রধান অতিথি ড. শেখ ফজলুল করিম সেলিম এমপি কাশিয়ানী উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি হিসেবে পুনরায় বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. মোক্তার হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক হিসেবে কাজী জাহাঙ্গীর আলমের নাম ঘোষণা করেন।

এদিকে দীর্ঘ সাত বছর পর অনুষ্ঠিত কাশিয়ানী উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনকে কেন্দ্র করে গোপালগঞ্জ জেলা সহ ৫ উপজেলা আওয়ামী লীগ এবং বিভিন্ন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, বিভিন্ন ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও জনপ্রতিনিধিদের উপস্থিতি ছিলো চোখে পড়ার মতো।