• ঢাকা
  • সোমবার, ১৭ Jun ২০২৪, ০২:৫৫ পূর্বাহ্ন

অর্থ মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তার একাধিক ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে অংশীদারি ও সুদ কারবার 


প্রকাশের সময় : এপ্রিল ৭, ২০২২, ৬:৪০ অপরাহ্ন / ৩১২
অর্থ মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তার একাধিক ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে অংশীদারি ও সুদ কারবার 

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ অর্থ মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা তিনি। অর্থের ব্যবহার বিধি কত প্রকার সেটা ভালো করেই জানেন তিনি। অর্থমন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা ফয়সাল আহমেদ সরকারি চাকরিতে কর্মরত থাকা অবস্থায় চাকরি বিধি লংঘন করে বিভিন্ন ব্যাবসায়িক প্রতিষ্ঠানে লাখ লাখ টাকার বিনিময় নিজের স্ত্রী ও পরিবারের সদস্যদের নামে অংশীদারিত্ব নেয়া সহ রাজধানীর বিভিন্ন এলাকার অসংখ্য প্রতিষ্ঠান সুদ কারবারি চালিয়ে যাচ্ছে বলে জানা গেছে।

এসব তথ্যের ভিত্তিতে সংবাদ সংগ্রহের উদ্দেশ্যে একজন গণমাধ্যমকর্মী তার মন্তব্য জানতে চাওয়ায় তাকে হুমকি-ধামকি ও ভয়ভীতি প্রদর্শন করার অভিযোগ উঠেছে।
এছাড়াও জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি ফরিদ ইয়াসমিন ও সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াস খান এর বরাত দিয়ে ভয়-ভীতি প্রদর্শন করেন। তার সকল কর্মকান্ডের বিষয় জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি ফরিদ ইয়াসমিন শেল্টার দিবেন বলে মানুষকে বলে বেড়ান ফয়সাল আহমেদ। নিজের প্রতিষ্ঠিত বন্ধুবান্ধব সহ অনেক বড় বড় সাংবাদিক তার পকেটে রয়েছে এবং ক্ষমতাসীন দলে অনেক পদ-পদবির বড় নেতারা তার ছোট ভাই তাদেকের দিয়ে ওই সংবাদ কর্মীকে শায়েস্তা করার হুমকি প্রদান করেন। যেসব অভিযোগ নিয়ে ভুক্তভোগীরা সংবাদকর্মী থানায় অভিযোগ করেছেন বলে জানা গেছে।
এছাড়াও তার এসব চাকরি বিধি লঙ্ঘনের অভিযোগে সংবাদ প্রকাশ করায় অনুসন্ধানী সংবাদমাধ্যম সকালের সংবাদ এর সম্পাদক হাফিজুর রহমান সফিককে হামলা-মামলা সহ জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি ফরিদা ইয়াসমিন ও সেক্রেটারি ইলিয়াস খান কে হেনস্তা করার হুমকি প্রদান করার পাশাপাশি অকথ্য অশ্লীল শব্দ প্রয়োগ করে হেনস্থা করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।
অর্থ মন্ত্রণালয় কর্মকর্তার সুদ ব্যবসা সহ বিভিন্ন ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানে অংশীদারিত্বের বিস্তারিত তথ্য উপাত্ত ও সচেষ্ট মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের মন্তব্যসহ বিস্তারিত জানতে সাথেই থাকুন।