শিরোনাম

যে সকল কারনে বাতের ব্যাথা হয়

4293_1একাধিক হাড়ের সংযোগস্থলে ব্যথাকেই আর্থরাইটিস বা চলতি কথায় বাত বলে। সাধারণভাবে ৫০-এর বেশি বয়সী মানুষদেরই বাতের ব্য়থায় আক্রান্ত হতে দেখা যায়। মূলত মহিলারাই এই বাতের ব্যথার শিকার হন। কিছুক্ষেত্রে খুব কমবয়সীদের শরীরেও বাতের ব্যথা দেখা যায়। বাতের ব্যথা সাধারণত দুই ধরনের দেখা যায়। অস্টিওআর্থরাইটিস ও রিউমাটোয়িড আর্থরাইটিস।

এক্ষেত্রে হাড়ের নানা জায়গার সংযোগস্থলে অসম্ভব ব্যথা হয়, ব্যথা জায়গা নাড়ানো যায় না। এছাড়াও মাংসপেশিতে ব্যথা, ওজন কমে যাওয়া, ঘুম না হওয়া, হাঁটতে-চলতে অসুবিধা হওয়া ইত্যাদি হয়। এছাড়াও আরও নানা সমস্যা বাতের ব্যথার ফলে শরীরে হয়।
জেনে নিন, কি কি কারণে বাতের ব্যথার সমস্যায় ভুগতে হতে পারে।

বয়স অস্টিওআর্থরাইটিস সাধারণত বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে হয়। বয়স বাড়লে নিজে থেকে ব্যথা সারিয়ে নেওয়ার ক্ষমতা কার্টিলেজের কমতে থাকে ফলে বাতের ব্যথা শুরু হয়।

ধূমপান বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, ধূমপান করলে সব ধরনের বাতের ব্যথার ঝুঁকি দ্বিগুণ হয়ে যায়।

লাল গোশত সব ধরনের লাল গোশত বা রেড মিটই রিউমাটোয়িড আর্থরাইটিসের প্রবণতা অনেক বাড়িয়ে দেয়।

ভিটামিন সি ও ভিটামিন ডি শরীরে ভিটামিন সি ও ভিটামিন ডি-র অভাব থাকলে হাড়ের পুষ্টি সঠিকভাবে হয় না। ফলে অস্টিওআর্থরাইটিস হতে পারে।

ওজন বাড়তে থাকা শরীরের ওজন বাতের ব্যথার অনুঘটক হিসাবে কাজ করে। হাঁটু শরীরের ওজন বইতে পারে না। ফলে বাতের ব্যথা শুরু হয়।

অ্যালার্জি ধুলো-ময়লা হোক অথবা কোনও জিনিসের প্রতি অ্যালার্জি, বাতের ব্যথায় এই সবকিছুই প্রভাব ফেলে।

খেলোয়াড় অ্যাথলিটরা বারেবারে চোট পান। ফুটবল, টেনিস খেলোয়াড়রা বিশেষ করে অস্টিওআর্থরাইটিসের সমস্যায় ভোগেন।

বংশানুক্রম বংশানুক্রমে বাতের ব্যথা এক প্রজন্ম থেকে আর এক প্রজন্মের মধ্যে স্থানান্তরিত হয়।

অস্বাস্থ্যকর শরীরচর্চা না করা, অস্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়া ইত্যাদি কারণে ওজন অস্বাভাবিক বেড়ে যায়। এছাড়া বহুক্ষণ টিভি দেখা, অলসতা ইত্যাদি কারণে পরে গিয়ে বাতের ব্যথা হয়।

খাটনির কাজ অনেককে শারীরিকভাবে প্রচুর কাজ করতে হয়। এই কায়িক শ্রম বেশি করলে নানা জায়গার হাড়ের সংযোগস্থলে বাতের ব্যথা শুরু হয়।

Be Sociable, Share!
বিভাগ: স্বাস্থ্য সেবার খবর

এখনো কোন মন্তব্য করা হয়নি.

মন্তব্য করুন

*