শিরোনাম

ক্যাঙ্গারু ও শূকরের প্রেমে বিব্রত অস্ট্রেলিয়া

2016_06_11_15_38_20_qScwuyB2hE0GrDOiVGJYMK3afvvFvw_originalআজকের বিডি রিপোর্ট : অস্ট্রেলিয়ার উত্তরাঞ্চলীয় রাজ্যের অধিবাসীরা এক অসম প্রেম নিয়ে বেশ বিব্রত। অস্ট্রেলিয়ার সংস্কৃতিতে ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে নর-নারীর প্রেম নিয়ে অতিরঞ্জিত কোনো ঘটনার নজির নিকট অতীতে নেই। কিন্তু নর-নারীর প্রেম হলে তাও কথা ছিল। কিন্তু এযে ক্যাঙ্গারু আর শূকরের প্রেম! স্থানীয় অধিবাসী গ্রেগ ডিক ব্রিটিশ মিডিয়া বিবিসি’কে এই কাঙ্গারু ও শূকরের প্রেমের বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তবে স্থানীয়দের দৃষ্টিতে এই  বিব্রতকর প্রেমের জন তারা দোষারোপ করছেন ক্যাঙ্গারুটিকে। কারণ তাদের অভিমত হলো, একটি ক্যাঙ্গারু কিভাবে শূকরের প্রেমে পরতে পারে যেখানে ক্যাঙ্গারুকে অস্ট্রেলিয়ায় এতটা সম্মানের সঙ্গে দেখা হয়।

বিবিসি’কে দেয়া গ্রেগের সাক্ষাতকারে জানা যায়, কিছুদিন ধরেই ক্যাঙ্গারুটি শূকরটির কাছাকাছি যাচ্ছিল। একটা সময় ক্যাঙ্গারুটিকে ওই শূকরটির সঙ্গে যৌনসম্পর্ক করতেও দেখা যায়। আর এই ঘটনায় স্থানীয়রা ক্যাঙ্গারুটির উপর বেজায় ক্ষেপেছেন। এক অধিবাসীতো ক্যাঙ্গারুর এই ঘটনায় হতভম্ব হয়ে ক্যাঙ্গারুটিকে শাপশাপান্ত করতেও শুরু করে। তবে ঘটনাটির শেষ ওখানেই নয়, বেশ কিছু পর্যটক ওই ঘটনাটি ক্যামেরাবন্দী করে বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে দেয় এবং এতে উত্তরাঞ্চলীয় অধিবাসীরা নিজেদের অপমানিতও মনে করছেন।

‘আমরা কিছুদিন ধরেই প্রাণী দুটির অন্তরঙ্গতা দেখতে পাচ্ছিলাম। এমনকি তারা পাশাপাশি ঘোরাঘুরি করতো। সেসময় তাদেরকে একে অপরের উপরে চড়তেও দেখা যেত। একটা সময় আসলো যখন শূকরটি হঠাৎ করেই ক্যাঙ্গারুর উপর চড়াও হয়।’ এভাবেই তাদের প্রেমের বয়ান দিচ্ছিল এক অস্ট্রেলীয় অধিবাসী। প্রকৃতিতে এমন বিরল ঘটনা সচরাচর দেখা যায় না। কিন্তু স্থানীয় জনগণের বক্তব্য হলো, কিভাবে দুটি ভিন্ন প্রজাতির প্রাণীর মধ্যে এমন সম্পর্ক তৈরি হয় এবং তারা যৌন সম্পর্কেও লিপ্ত হয়।

গবেষক মার্ক এলড্রিগজের মতে, আমরা সচরাচর এমন দৃশ্য দেখতে অভ্যস্ত নই। কিন্তু প্রকৃতিতে এমন অনেক ঘটনাই ঘটে। আমরা দলছুট অনেক প্রাণীর কথা জানতে পারি কিন্তু কেন তারা দলছুট তার সঠিক কারণ আমাদের পক্ষে জানা সম্ভব হয় না। মানব সমাজে যেমন আবেগ নির্ভর সম্পর্ক তৈরি হয়, কিছু কিছু পশুদের ক্ষেত্রেও তা হয়। তবে এক্ষেত্রে মানুষের সংস্পর্শে থাকা প্রাণীদের মধ্যেই এমন বিচিত্রতা লক্ষ্য করা যায় অধিক।

Be Sociable, Share!
বিভাগ: প্রাণ প্রকৃতি

এখনো কোন মন্তব্য করা হয়নি.

মন্তব্য করুন

*