শিরোনাম

বাঁশের ঝাড়ে হঠাৎ সবাই প্যান্ট বাঁধছে কেন?

2016_05_10_11_14_35_ELux9bnzhSswqMpwphOTWY5kpgC624_originalজেলা সংবাদদাতা : ছোট্ট একটি বাঁশের ঝাড়। পুরো বাঁশের ঝাড়ে শিশুদের ব্যবহার করা প্যান্ট বাধা আছে। দেখে মনে হয় যেনো প্যান্টের স্তূপ। দৃশ্যটি দেখে পথচারীদের অনেকই অবাক না হয়ে পারে না। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, আশপাশের লোকজনেরই কাজ এটি।

যেসব শিশু বিছানায় মূত্রত্যাগ করে তাদের অভিভাবকদের বিশ্বাস ওই বাঁশ ঝাড়ে শিশুটির একটি প্যান্ট বেধে দিলেই অসুখটি ভালো হয়ে যাবে।

নওগাঁ জেলার মহাদেবপুর উপজেলার শিবগঞ্জ মোড় থেকে সতীর হাট আসার পথে শিবগঞ্জ গ্রামে রাস্তার পাশেই এ বাঁশ ঝাড়টি চোখে পড়বে।

স্থানীয় কুমারী মালা দেবী জানান, দীর্ঘদিন ধরে আশপাশের মানুষ এ বাঁশ ঝাড়টিকে বিশ্বাস করে। সব সময় কয়েক শত শিশুদের প্যান্ট ওই বাঁশের ঝাড়ে বাধা থাকে। গ্রামের অনেক শিশু বড় হওয়ার পরেও বিছানায় মূত্রত্যাগ করে। আর এ কারণে অনেক বাবা-মায়েরা এ বাঁশ ঝাড়ে ওই শিশুর একটি প্যান্ট বেধে রেখে আসে। এতে শিশুটির ওই অসুখ ভালো হয়ে যায়।

কুমারী মালা দেবী আরো জানান, ৬ থেকে ৭ বছর ধরে ওই এলাকার মানুষ এমন কাজটি করে আসছে। এতে নাকি অনেকই সুফল পেয়েছেন বলে জোর গলায় দাবি করেন তিনি।

তবে, শিশু বিশেষজ্ঞরা বলছেন অন্য কথা। তাদের মতে এ ধরনের সমস্যার বেশিরভাগই কোনো সমস্যাই নয়। শিশুদের বিছানায় মূত্রত্যাগ একটি সাধারণ সমস্যা। ৭ বছর বয়স পর্যন্ত শিশুদের বিছানায় মূত্রত্যাগকে স্বাভাবিক হিসাবে ধরা হয়। এই বয়সে শিশুদের মূত্রাশয়ের ওপর নিয়ন্ত্রণ সম্পূর্ণরূপে নাও আসতে পারে। তবে এই সময়ের পরও বিছানায় মূত্রত্যাগ অব্যাহত থাকলে সঠিকভাবে চিকিৎসা করানো প্রয়োজন। এই সমস্যার চিকিৎসা করিয়ে এবং শিশুদের ঠিকভাবে মূত্রত্যাগ করা শিখিয়ে সমস্যাটি দূর করা সম্ভব।

Be Sociable, Share!
বিভাগ: জেলার খবর, ভিন্ন রকম খবর

এখনো কোন মন্তব্য করা হয়নি.

মন্তব্য করুন

*