শিরোনাম

জরুরি ভিত্তিতে ৩ লাখ টন চাল আমদানি করছে সরকার

248476_111নিজস্ব প্রতিবেদক: দেশের খাদ্য সংকট মোকাবেলায় জরুরি ভিতিত্তে আরো তিন লাখ মেট্রিক টন চাল আমদানি করছে সরকার। পরপর দু’বার বন্যার কারণে দেশে ব্যাপক ফসলহানি হয়েছে। এ অবস্থায় খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে এর আগে চালের সংকট কাটাতে কয়েক দফা চাল আমদানি করেছে সরকার। একই সাথে বেসরকারি খাতে চাল আমদানিকে উৎসাহিত করতে আমদানি শুল্ক ২৮ শতাংশ থেকে কমিয়ে মাত্র দুই শতাংশে নামিয়ে এনেছে সরকার। দেশে বর্তমানে খাদ্য ঘাটতির পরিমান ২০ লাখ টন বলে জানা গেছে।

আজ বুধবার সচিবালয়ে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের সভাপতিত্বে সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত্র মন্ত্রিসভা কমিটি এ বিষয়ে দুটি ক্রয় প্রস্তাবের অনুমোদন দিয়েছে।

বৈঠকে কমিটির সদস্য, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সিনিয়র সচিবসহ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সচিব ও ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মোস্তাফিজুর রহমান সাংবাদিকদের এসব বিষয়ে ব্রিফ করেন।

তিনি বলেন, কম্বোডিয়া থেকে দুই লাখ পাঁচ হাজার মেট্টিক টন চাল সরকার থেকে সরকার (জি টু জি) পর্যায়ে আমদানির জন্য আরো একটি প্রস্তাব অনুমোদন করেছে। প্রতি মেট্টিক টন ৪৫৩ ইউএস ডলার হিসেবে এ আড়াই লাখ টান চাল আমদানিতে বাংলাদেশী টাকায় মোট খরচ হবে ৯৩৯ কোটি ৯৭ লাখ টাকা।

এছাড়া আন্তর্জাতিক কোটেশনের মাধ্যমে ২০১৭-১৮ অর্থবছরে প্যাকেজ তিনের আওতায় আরো ৫০ হাজার মেট্টিক টন নন-বসমতি সিদ্ধ চাল আমদানির প্রস্তাবও অনুমোদন দেয় কমিটি। প্রতি মেট্টিক টন চাল ৪০৭ দশমিক ৮৯ ইউএস ডলার হিসেবে সরবরাহ করবে সিঙ্গাপুরের প্রতিষ্ঠান মেসার্স রেজিংটন এন্টারপ্রাইজ লিমিটেড। এতে বাংলাদেশী টাকা খরচ হবে ১৬৯ কোটি ২৭ লাখ টাকা।

এদিকে দরপত্র আহ্বান ছাড়া জরুরি রাষ্ট্রীয় প্রয়োজনে কম্বোডিয়া থেকে সরকার থেকে সরকার পর্যয়ে দুই লাখ পাঁচ হাজার মেট্রিক টন আতপ চাল আমদানি করার একটি প্রস্তাব নীতিগত অনুমোদন দিয়েছে সরকারি বিষয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি।

বৈঠকে ‘কক্সবাজার জেলার ক্ষতিগ্রস্থ পোল্ডারসমূহের পুনর্বাসন (১ম সংশোধিত)’ শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় বিভিন্ন নির্মাণ কাজ সংক্রান্ত পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের একটি প্রস্তাব অনুমোদন দেয়া হয়েছে। সরাসরি ক্রয় পদ্ধতিতে কাজটি বাস্তবায়ন করবে বাংলাদেশ নৌবাহিনী কর্তৃক পরিচালিত ডকইয়ার্ড অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং ওয়ার্কস লিমিটেড। এজন্য মোট ব্যয় হবে ১৫৬ কোটি ৯৯ লাখ ৫৬ হাজার টাকা।

মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, জি-টু-জি ভিত্তিতে কাতারের রাশগ্যাস-এর কাছ থেকে সরাসরি ক্রয় পদ্ধতিতে ১৫ বছর মেয়াদী চুক্তির আওতায় এলএনজি ক্রয়ের নেগোশিয়েটেড প্রাইসিং ফর্মূলা ও খসড়া চুক্তিপত্র অনুমোদনের প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে কমিটি।

বৈঠকে দেশে ক্রমবর্ধমান বিদ্যুৎ চাহিদা মেটাতে দেশের বিভিন্ন স্থানে নতুন বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপন, বিদ্যমান কেন্দ্রের চুক্তির মেয়াদ বাড়ানো এবং বিদ্যুৎ সাব-স্টেশন নির্মানের অনুমোদন দিয়েছে কমিটি। এর মধ্যে বেসরকরিখাতে জামালপুরে ১১৫ মেগাওয়াট এইচএফও ভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনের প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে কমিটি। বেসরকারি উদ্যোক্তা মেসার্স ইউনাইটেড এন্টারপ্রাইজ বিদ্যুৎ কেন্দ্রটি স্থাপন করবে। বিল্ড-ওন-অপারেট ( বিওও) ভিত্তিতে প্রতিষ্ঠিত এ কেন্দ্রে উৎপাদিত প্রতি কিলোওয়াট/ঘণ্টা বিদ্যুতের দাম পড়বে আট দশমিক ৭৩১ টাকা।

বৈঠকে প্রিসিশন এনার্জি লিমিটেড-এর আশুগঞ্জ ৫৫ মেগাওয়াট গ্যাস ভিত্তিক রেন্টাল বিদ্যুৎ কেন্দ্রের মেয়াদ বৃদ্ধি এবং বর্ধিত মেয়াদের জন্য ট্যারিফ অনুমোদনের প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে কমিটি।

নতুন ট্যারিফ নির্ধারন করা হয়েছে। পাঁচ বছর মেয়াদে নতুন ট্যারিফ নির্ধারন করা হয়েছে দুই দশমিক ৯০৫৮ টাকা/ কিলোঘণ্টা।

মেসার্স পাওয়ারপ্যাক মুতিয়ারা কেরানীগঞ্জ পাওয়ার প্ল্যান্ট লিমিটেডের এইচএফও ভিত্তিক কোরনীগঞ্জ ১০০ মেগাওয়াট পাঁচ বছর মেয়াদী রেন্টাল বিদ্যুৎ কেন্দ্রের মেয়াদ বৃদ্ধির একটি প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে কমিটি। একই সাথে বর্ধিত মেয়াদেরর জন্য ট্যারিফও নির্ধারণ করে দিয়েছে। নতুন ট্যারিফ নির্ধারনের পর প্রতি কিলোওয়াট ঘণ্টার দাম পড়বে ১১ দশমিক ৫২৯৩ টাকা।

বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের ‘পল্লী বিদ্যুতায়ন সম্প্রসারণ ঢাকা বিভাগীয় কার্যক্রম-২’ শীর্ষক প্রকল্পের একটি সাব-প্যাকেজ আওতায় চারটি ৩৩/১১ কেভি সাব-স্টেশন নির্মাণের প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে কমিটি। এতে ব্যয় হবে ২৫ কোটি ৫২ লাখ ৭৬ হাজার টাকা। প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে মেসার্স এনার্জী প্যাক।

অতিরিক্ত সচিব বলেন, বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের ‘পল্লী বিদ্যুতায়ন সম্প্রসারন ঢাকা বিভাগীয় কার্যক্রম-২’ শীর্ষক প্রকল্পের একটি সাব-প্যাকেজ আওতায় ৪ টি ৩৩/১১ কেভি সাব-স্টেশন নির্মানের প্রস্তাবও অনুমোদন দিয়েছে কমিটি। এতে ব্যয় হবে ২৬ কোটি ২৫ লাখ ২৯ হাজার টাকা। প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে মেসার্স এনার্জী প্যাক।

বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের ‘পল্লী বিদ্যুতায়ন সম্প্রসারন ঢাকা বিভাগীয় কার্যক্রম-২’ শীর্ষক প্রকল্পের একটি সাব-প্যাকেজ আওতায় তিনটি ৩৩/১১ কেভি সাব-স্টেশন নির্মানের প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে কমিটি। এতে ব্যয় হবে ১৯ কোটি ৫৩ লাখ ৮৭ হাজার টাকা। প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে মেসার্স এনার্জী প্যাক।

বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের ‘পল্লী বিদ্যুতায়ন সম্প্রসারন ঢাকা বিভাগীয় কার্যক্রম-২’ শীর্ষক প্রকল্পের একটি সাব-প্যাকেজ আওতায় তিনটি ৩৩/১১ কেভি সাব-স্টেশন নির্মানের প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে কমিটি। এতে ব্যয় হবে ২০ কোটি ১১ লাখ ৭৭ হাজার টাকা। প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে মেসার্স সানরাইজ এন্টারপ্রাইজ।

বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের ‘পল্লী বিদ্যুতায়ন সম্প্রসারন ঢাকা বিভাগীয় কার্যক্রম-২’ শীর্ষক প্রকল্পের একটি সাব-প্যাকেজ আওতায় তিনটি ৩৩/১১ কেভি সাব-স্টেশন নির্মাণের প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে কমিটি। এতে ব্যয় হবে ২১ কোটি ২৫ লাখ ৯৮ হাজার টাকা। প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে মেসার্স এনার্জি প্যাক।

বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের ‘পল্লী বিদ্যুতায়ন সম্প্রসারন ঢাকা বিভাগীয় কার্যক্রম-২’ শীর্ষক প্রকল্পের একটি সাব-প্যাকেজ আওতায় চারটি ৩৩/১১ কেভি সাব-স্টেশন নির্মাণের প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে কমিটি। এতে ব্যয় হবে ২৭ কোটি নয় লাখ ৫৪ হাজার টাকা। প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে মেসার্স এনার্জী প্যাক।

মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, বাংলাদেশ সরকার ও এশিয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি) এর অর্থায়নে রামু থেকে মিয়ানমার পর্যন্ত রেললাইন নির্মাণ প্রকল্পের সুপারভিশন কনসালট্যান্ট নিয়োগের একটি প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে সরকার ক্রয় সংক্রান্ত্র মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।

মেসার্স এমএসইসি ইন্টারন্যাশনাল কনসালট্যান্ট কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের সাথে যৌথভাবে এ দায়িত্ব পালন করবে। এতে ব্যয় হবে ৪১৬ কোটি ৫১ লাখ ২৭ হাজার টাকা।

বৈঠকে চলতি বছরের আগস্ট থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত সময়ে ইন্দোনেশিয়া থেকে এক লাখ ৩৭ হাজার ৬০০ ব্যারেল অকটেন আমদানির একটি প্রস্তাব অনুমোদন দেয়া হয়েছে । প্রতি ব্যারেল অকটেনের প্রিমিয়াম নির্ধারণ করা হয়েছে চার দশমিক ৫৫ ডলার।

Be Sociable, Share!
বিভাগ: অর্থনীতি, জাতীয় খবর

এখনো কোন মন্তব্য করা হয়নি.

মন্তব্য করুন

*