শিরোনাম

নারায়ণগঞ্জে বেকায়দায় পরে ঘুষের টাকা ফেরত দিল ডিবি পুলিশ!

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি:নারায়ণগঞ্জে ডিবি পুলিশের বিরুদ্ধে জাল টাকাসহ আটক এক আসামীকে ৭০ হাজার টাকা উৎকোচ নিয়েও আদালতে চালান দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। ওই আসামীর স্ত্রী বিউটি আক্তার গাড়ির বাম্পারের সঙ্গে ওড়না বেঁেধ গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা চালালে বাধ্য হয়ে ঘুষের ৭০ হাজার টাকা ফেরত দিয়েছে ডিবি পুলিশ। বৃহস্পতিবার (১২ অক্টোবর) বিকেল তিনটার দিকে নারায়ণগঞ্জ আদালতপাড়া এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। এতে আদালতপাড়ায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

Totol molla 01প্রত্যক্ষদর্শী আইনজীবী ও আসামীর পরিবার জানিয়েছে, বুধবার রাত পৌঁনে ১২টার দিকে সাইনবোর্ড এলাকা থেকে পরিবহন ব্যবসায়ী ইসহাক বেপারীকে ৩১ হাজার টাকা জালনোটসহ ডিবি পুলিশের এসআই আসাদ, মোল্লা টুটুল ও এসআই আশরাফ আটক করে। রাতে ইসহাক বেপারীকে ছেড়ে দেয়ার জন্য তার পরিবারের কাছে মুঠোফোনে ১০ লাখ টাকা উৎকোচ দাবি করে। দরকষাকষি করে দেড় লাখ চুক্তি হয়। পরে বৃহস্পতিবার সকালে ইসহাক বেপারীর স্ত্রী বিউটি তার স্বামীকে ছাড়াতে ডিবি পুলিশ অফিসে গিয়ে ৭০ হাজার টাকা প্রদান করেন এবং তাকে জানানো হয় তার স্বামীকে ছেড়ে দেয়া হবে। কিন্তু বাকী টাকা না দেয়ায় তার স্বামীকে মাইক্রোবাসযোগে দুপুর তিনটার দিকে আদালতে চালান করে দেয়ার জন্য কোর্টে নিয়ে যায়। বিউটি বেগম আদালতপাড়ায় ডিবি পুলিশের গাড়ির বাম্পারের সঙ্গে ওড়না বেঁধে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। তিনি চিৎকার করে বলতে থাকেন, হয় আমার স্বামীকে ছেড়ে দেয়া হোক। না হলে ঘুষের ৭০ হাজার টাকা ফেরত দেয়া হোক। এসময় আইনজীবী ও উৎসুক লোকজন ডিবি পুলিশের গাড়ি ঘিরে ফেলে। তখন ডিবি পুলিশ বিউটি বেগমকে দ্রুত কোর্ট পুলিশ পরিদর্শকের রুমের দিকে নিয়ে যায়। এসময় সাংবাদিকরা যেতে বাইলে তাদেরকে বাধা দেয়া হয়। পরে আসামীর শ্যালিকা ঝুমা ইসলামের কাছে ঘুষে ৭০ হাজার টাকা ফেরত দেয়া হয়।এই ঘটনায় আদালতপাড়ায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

তবে জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিএসবি) ফারুক হোসেন জানিয়েছেন, টাকা ঘুষ নেয়ার অভিযোগটি সত্য নয়। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Be Sociable, Share!
বিভাগ: অপরাধ (ক্রাইম), জেলার খবর, সারা বাংলার খবর

এখনো কোন মন্তব্য করা হয়নি.

মন্তব্য করুন

*